পাঁচ রাজ্যে নতুন করে করোনা-আক্রান্ত ১৬,৭৯৯ বাকি দেশে ৫,৯৭২

0
Coronavirus

খবরঅনলাইন ডেস্ক: যত দিন যাচ্ছে ভারতে করোনা-পরিস্থিতির ছবিতে একটি বিভাজন স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এক একটি রাজ্যে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) এক এক রকম ছবি দেখা যাচ্ছে।

এই যেমন গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২,৭৭১ জন। এর মধ্যে ১৬,৭৯৯ জনই পাঁচ রাজ্যের। অর্থাৎ, ভারতের বাকি অংশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ৫,৯৭২ জন।

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী ভারতে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লক্ষ ৪৮ হাজার ৩১৫। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৩৫ হাজার ৪৩৩। সুস্থ হয়েছেন ৩ লক্ষ ৯৪ হাজার ২২৭। মৃত্যু হয়েছেন ১৮,৬৫৫ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সুস্থ হয়েছেন ১৪,৩৩৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৪২। দেশে সুস্থতার হার বর্তমানে রয়েছে ৬০.৮০ শতাংশ।

যে পাঁচ রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা সব থেকে বেশি তারা হল, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, তেলঙ্গানা আর কর্নাটক।

মহারাষ্ট্রে সুস্থ হয়েছেন এক লক্ষের বেশি

গত ২৪ ঘণ্টায় সব থেকে বেশি আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে মহারাষ্ট্র থেকেই (৬৩৬৪)। কিন্তু সে রাজ্যে সুস্থতার হারও আশাব্যঞ্জক। এখনও পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দু’লক্ষের গণ্ডি না পেরোলেই ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন এক লক্ষ চার হাজার ৬৮৭। সক্রিয় রোগী এখন রয়েছেন ৭৯,৯২৭।

এ রাজ্যে করোনায় মারা গিয়েছেন ৮৩৭৬ জন। ফলে মহারাষ্ট্রে মৃত্যুহার এখন রয়েছে ৪.৩৪ শতাংশ।

তামিলনাড়ুতে আক্রান্ত এক লক্ষ

মহারাষ্ট্রের পর দ্বিতীয় রাজ্য হিসেবে আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষের গণ্ডি পেরোল তামিলনাড়ুতে। গত ২৪ ঘণ্টায় এ রাজ্যে নতুন করে ৪৩২৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে তামিলনাড়ুতে এখন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে এক লক্ষ ২৭২১ জন।

তবে তামিলনাড়ুতে রোজ ৩০ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে। আর সুস্থতার হারও এই রাজ্যে ৫০ শতাংশের ওপরে রয়েছে। অন্য দিকে মৃত্যুহারও মাত্র এক শতাংশের কিছু বেশি রয়েছে।

এক লক্ষের পথে এগোলেও দিল্লির পরিস্থিতি কিছুটা থিতু হচ্ছে

দিল্লির করোনা-পরিস্থিতি কিছুটা থিতু হচ্ছে বলেই মনে করছে রাজ্য সরকার। গত কয়েক দিন ধরেই নতুন আক্রান্তের সংখ্যা দুই থেকে আড়াই হাজারের মধ্যে ঘোরাফেরা করছে। কিছু দিন আগেও সংখ্যাটা সাড়ে তিন হাজারের ওপরে ছিল। ফলে দিল্লিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ২৫৩০ হলেও কিছুটা স্বস্তিতেই রয়েছে প্রশাসন। রাজধানীতে সুস্থতার হারও বিপুল ( ৬৯.৩০ শতাংশ)। দিল্লিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪ হাজারের গণ্ডি পেরোলেও সক্রিয় রোগী রয়েছেন মাত্র ২৬,১৪৮।

পশ্চিমবঙ্গকে টপকে যাওয়ার পথে তেলঙ্গানা, কর্নাটক

পশ্চিমবঙ্গের মানুষ এই পরিসংখ্যানে কিছুটা হলেও স্বস্তি পেতে পারেন যে গত কয়েক দিনে যে প্রবণতা দেখা যাচ্ছে তাতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় পশ্চিমবঙ্গকে টপকে যেতে চলেছে তেলঙ্গানা আর কর্নাটক।

এর মধ্যে তেলঙ্গানার ছবি, সব থেকে ভয়াবহ। গত ২৪ ঘণ্টায় এ রাজ্যে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১,৮৯২ জন। এর ফলে এই রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন চলে এসেছে ২০,৪৬২-তে। পশ্চিমবঙ্গে বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা ২০,৪৮৮। কিন্তু তেলঙ্গানার কাছে ভয়াবহ ব্যাপারটি হল তেলঙ্গানায় যত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, তার পাঁচগুণ বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে।

পিছিয়ে নেই কর্নাটকও। গত ২৪ ঘণ্টায় এ রাজ্যে ১৬০০-এর বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯,৭১০। তেলঙ্গানা আর কর্নাটকে সুস্থতার হার ৫০ শতাংশের নীচে রয়েছে।

মোট নমুনা পরীক্ষা

আইসিএমআরের তথ্য বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২ লক্ষ ৪২ হাজার ৩৮৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে এখনও পর্যন্ত ভারতে ৯৫ লক্ষ ৪০ হাজার ১৩২টি নমুনা পরীক্ষা হয়ে গিয়েছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন