খবর অনলাইন ডেস্ক: রবিবার কর্নাটকের চামরাজনগরের একটি সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২৪ জন রোগী মারা গিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আধিকারিকরা।

চামরাজনগর জেলা হাসপাতালের এক ঊর্ধ্বতন আধিকারিক সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর কাছে বলেন, রবিবার মধ্যরাত ১২টা থেকে ২টোর মধ্যে অক্সিজেনের অভাব দেখা দেয়। মারা যান ওই ২৪ রোগী। একই সঙ্গে তিনি জানান, ওই হাসপাতালে কমপক্ষে ১৪৪ জন রোগী চিকিৎসাধীন ছিলেন।

হাসপাতালে ছেলের ভরতি করেছিলেন লোকেশ নামে এক ব্যক্তি। তিনি বলেন, “আমার ছেলে ৭৫ শতাংশ সুস্থ হয়ে উঠেছিল। যদি অক্সিজেন সিলিন্ডার থাকত, তা হলে সে বেঁচে যেত”।

এ রকমই আরেকজন রোগীর আত্মীয় জানান, মধ্যরাতে তাঁর ভাইয়ের কাছ থেকে তিনি একটি ফোন পেয়েছিলেন। রাত ১২টা নাগাদ ফোন করে ভাই জানিয়েছিলেন, অক্সিজেন নেই। দয়া করে দয়া করে দেখো, তোমরা কী করতে পারো। সঙ্গে সঙ্গে ভাইকে দেখতে হাসপাতালে আসেন তিনি। কিন্তু কাউকেই ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। ফোন করেও কোনো উত্তর মেলেনি। এর পর জানা যায়, ওই ব্যক্তির ভাই মারা গিয়েছেন।

সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই ঘটনা নিয়ে জেলাশাসকের সঙ্গে কথা বলেছেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদ্দিয়ুরাপ্পা। মঙ্গলবার এ ব্যাপারে জরুরি বৈঠকও ডাকা হয়েছে। পাশাপাশি রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে এ ব্যাপারে তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দিতেও বলা হয়েছে।

মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন কর্নাটকের উপ-মুখ্যমন্ত্রী অশ্বনাথারায়ন সি এন। নাগরিকদের জীবন বাঁচানোর তাঁদের অগ্রাধিকারের তালিকায় রয়েছে বলে টুইটারে জানান তিনি। তবে দিল্লি, উত্তরপ্রদেশের পর এ ভাবে অক্সিজেনের অভাবে কর্নাটকে এতগুলি মানুষের মৃত্যু নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছে।

আরও পড়তে পারেন: Corona Update: অনেকটাই কমল নতুন সংক্রমণ, কমল মৃত্যু, সুস্থতা ফের তিন লক্ষে

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন