দেওয়ালে মাথা ঠুকে ও কোমরে আঘাত করে স্বামীকে খুন। সঙ্গী ১৬ বছরের ভাইপো। তারপর সেই দেহ লোপাট করতে ১২ ঘণ্টা বাইকে সওয়ার। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। শনিবার গভীর রাতে হায়দরাবাদ পুলিশের হাতে ধরা পড়ে গেলেন প্রভাল্লিকা মেন্দাম (২৫) ও তাঁর ভাইপো। মৃতের নাম পুল্লাইহা মেন্দাম। তিনি কোডাডার একটি সংস্থার মার্কেটিং সুপারভাইজার ছিলেন।

সূত্রের খবর, স্বামীকে হত্যা করার পর প্রতিবেশীর কাছ থেকে মোটর সাইকেল ভাড়া নিয়ে দেহ লোপাট করার চেষ্টা করেন তাঁরা। তিন জনকে একটি মোটর সাইকেলে করে যেতে দেখে সন্দেহ হয় নাগেশ্বর রাও ও মহেন্দর নামের দুই কনস্টেবলের। তাঁরা দেখেন, এক ব্যক্তির মাথা অন্য এক জনের কাঁধের ওপর রয়েছে ও পা দুটি মাটিতে ঘষটাচ্ছে। প্রায় ২ কিলোমিটার বাইকটিকে তাড়া করে ধরে ফেলেন তাঁরা। প্রথমে খুনের কথা অস্বীকার করলেও জেরায় ভেঙে পড়েন দু’জনেই।  

সপ্তাহ খানেক আগেই পুল্লাইহা আর তাঁর স্ত্রী হায়দরাবাদে আসেন। ভাইপোর সঙ্গে মহিলার সম্পর্ক থাকার অভিযোগে নালগোন্ডার গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল পরিবারটিকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন