ঝড়ে বিধ্বস্ত নাগপত্তিনম।

ওয়েবডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘গজ’-এ বিধ্বস্ত হল তামিলনাড়ুর ছয় জেলা। ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে রাজ্য জুড়ে অন্তত তিরিশ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ঘণ্টায় ১২৫ থেকে ১৩৫ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়া নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে তামিলনাড়ুর নাগপত্তিনমে আছড়ে পড়ে ‘গজ’। নাগপত্তিনম-সহ উপকূল তামিলনাড়ুর একটা বড়ো অংশ এই ঝড়ের দাপটে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত। ঝড়ের দাপটে ছয় জেলায় উপড়ে গিয়েছে কমপক্ষে ১৩০০০ বিদ্যুতের খুঁটি। ফলে রাজ্যের একটি বড়ো অংশেই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন।

সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত নাগপত্তিনম। সেখানে উপকূলবর্তী এলাকায় ভেঙে পড়েছে হাজার হাজার ঘরবাড়ি। মানুষের পাশাপাশি মারা গিয়েছে অসংখ্য গৃহপালিত। নাগপত্তিনম ছাড়াও কাডলোর, রামানাথপুরম, তাঞ্জাভুর, পুদুকোট্টাই এবং তিরুভারুর জেলার অবস্থায় শোচনীয়।

ঝড়ে সঙ্গে প্রবল বৃষ্টিতে ভেসে গিয়েছে মাঠের ফসল। অধিকাংশ জেলায় মাঠেঘাটে জমে রয়েছে হাঁটুজল। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাপ করতে আপাতত আকাশে চক্কর দিচ্ছে নৌসেনার কপ্টার।

আরও পড়ুন সিন্ধু সভ্যতার ধ্বংসের কারণ জলবায়ু পরিবর্তন, জানাল নতুন গবেষণা

ঝড় আছড়ে পড়ার আগেই ৮১ হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়েছিল প্রশাসন। কিন্তু তার পরেও মৃত্যু আটকানো গেল না।  সরকার ইতিমধ্যেই মৃতদের পরিবারপিছু ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। আহতদের দেওয়া হবে ১ লাখ টাকা।

তবুও প্রশ্ন থেকে গেল ২০১৩-এর ফাইলিন বা ২০১৪-এর হুডহুডের মতো প্রলয়ঙ্কারী ঝড়ে যখন ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশ মানুষের মৃত্যু ঠেকাতে পেরেছিল, তখন তুলনায় অনেক কম শক্তিধর ঝড় ‘গজ’তে কেন এত মানুষ প্রাণ হারালেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here