রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী-সাংসদদের বেতন কমল তিরিশ শতাংশ

নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাস (Coronavirus) মোকাবিলায় নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের। রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, রাজ্যপাল, মন্ত্রী ও সাংসদদের বেতন তিরিশ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সোমবার বিকেলে এমনই ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর (Prakash Javdekar)।

সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। আপাতত কেন্দ্র একটি অর্ডিন্যান্স (Ordinance) এনে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করবে। সংসদের অধিবেশন শুরু হলেই এ সংক্রান্ত আইন আনা হবে।

সোমবার মন্ত্রীদের নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে একটি জরুরি বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। সেই বৈঠকেই ঠিক হয় আগামী এক বছরের জন্য সাংসদরা ৩০ শতাংশ বেতন কম নেবেন। সঙ্গে সঙ্গে অর্ডিন্যান্স আনার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়।

রাষ্ট্রপতি সই করলেই এই অর্ডিন্যান্সটি কার্যকর হয়ে যাবে। ১ এপ্রিল থেকে এক বছরের জন্য বেতনে এই কাটছাঁট করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এলাকা উন্নয়নের জন্য আগামী দু’ বছর সাংসদদের আলাদা করে কোনো টাকা দেওয়া হবে না। অর্থাৎ, আগামী দু’বছরের জন্য বন্ধ হচ্ছে এমপিল্যাডও (MPLAD)। এই টাকা দেশ গঠনের কাজে লাগবে বলে জানিয়েছেন জাভড়েকর।

আরও পড়ুন লকডাউনে মানুষ যে পরিণত মনোভাবের পরিচয় দিয়েছেন, তা অভূতপূর্ব: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

জাভড়েকর এ দিন বলেন, “রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি, এবং বেশ কয়েকটি রাজ্যের রাজ্যপাল স্বেচ্ছায় নিজেদের বেতন থেকে সরকারি স্থায়ী তহবিলে দান করছেন। এঁদের বেতন প্রক্রিয়া যে হেতু অন্য, তাই এঁরা এই অর্ডিন্যান্সের আওতায় আসেন না। তবু  সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে স্বেচ্ছায় এঁরা দান করতে প্রস্তুত।”

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.