আয়করে এই ৫টি পরিবর্তন আসতে পারে এ বারের বাজেটে

0
Income Tax

ওয়েবডেস্ক: আগামী ৫ জুলাই ২০১৯-২০ বাজেট পেশ করতে চলেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। দ্বিতীয় ‘নরেন্দ্র মোদী সরকার’-এর প্রথম বাজেটে বড়োসড়ো পরিবর্তন দেখা দিতে পারে আয়কর পরিকাঠামোয়। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক সে সবই-

উচ্চ আয়কর ছাড় সীমা

ব্যক্তিগত ভাবে আয়কর ছাড়ের ঊর্ধ্বসীমা বার্ষিক তিন লক্ষ টাকা করা হতে পারে বলে জানাচ্ছে ব্লুমবার্গের একটি সূত্র। বর্তমানে বার্ষিক আড়াই লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়ের উপর কর ছাড় পাওয়া যায়। ক্লিয়ারট্যাক্স নামে অন্য একটি সংস্থার প্রতিনিধি অর্চিত গুপ্তা মনে করছেন, এ বারের বাজেটে করছাড়যোগ্য বার্ষিক আয়ের পরিমাণ তিন লক্ষ টাকা করা হতে পার। অর্থাৎ, মাসিক আড়াই হাজার টাকা বাড়তি করছাড় পাওয়ার প্রত্য়াশা করছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী সরকারের প্রথম বাজেটে এই করছাড় যোগ্য আয়ের পরিমাণ দুই লক্ষ টাকা থেকে প্রথমবার আড়াই লক্ষ করা হয়।

৮০সি ধারায় বিয়োগর পরিমাণ বৃদ্ধি

অর্থ মন্ত্রক ৮০সি ধারায় আয়করহীন স্চয়ের আয়তন বাড়াতে পারে বলেই ধারণা করছে ব্লুমবার্গ। তারা জানাচ্ছে, বর্তমানে বার্ষিক দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত ৮০সি ধারায় আয়করহীন স্চয় করার সুবিধা এ বারের বাজেটে আরও বাড়ানো হতে পারে। অন্য দিকে অপর একটি সূত্র বলছে, সমস্ত শ্রেণির রোগীর চিকিৎসার জন্য ৮০ডি ধারায় আয়তন ২৫-৩৫ হাজারের সীমাও বাড়তে পারে।

বর্তমানে মূল্যবৃদ্ধির দিকে তাকিয়েই এই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

এলটিসিজির উচ্চ সীমা

২০১৮ সালের বাজেটে ইক্যুইটিতে ১ লক্ষ টাকার উপর এলটিসিজি বা লং টার্ম ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্সের প্রবর্তন করেছিল এনডিএ সরকার। এ বারের বাজেটে ওই ঊর্ধবসীমা বাড়তে পারে। তালিকাভুক্ত ইক্যুইটি শেয়ার এবং মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট থেকে প্রাপ্ত আয় যদি বছরে এক লক্ষ টাকা অতিক্রম করে তা হলে এই এলটিসিজি প্রদেয়।

করমুক্ত বন্ড পুনরায় চালু করা

২০১৯-২০ বাজেটে করমুক্ত বন্ডগুলি পুনরায় চালু করা নিয়ে বড়োসড়ো ঘোষণা করতে পারে কেন্দ্র। এই বন্ডগুলিকে করমুক্ত বলা হয়, কারণ এই বন্ডে বিনিয়োগ করা অর্থের উপর প্রাপ্ত আয় অথবা সুদ সম্পূর্ণ ভাবে করমুক্ত। সরকারি সংস্থার পরিকাঠামো উন্নয়নে প্রয়োজনীয় অর্থ বাজার থেকে তুলতে এই বন্ড ছাড়া হয়। করমুক্ত বন্ডের মেয়াদ সাধারণত ১০ বছর বা তার বেশি। সড়ক প্রকল্পে সরকারের তৎপরতা বৃদ্ধিতে ন্যাশনাল হাইওয়ে কর্তৃপক্ষ (এনএইচআইআই) এই সিদ্ধান্তের সুবিধাভোগী হতে পারে।

এনপিএসে আয়কর ছাড়

গত বছর ডিসেম্বরে এনপিএস থেকে তোলা টাকার উপর আয়কর ছাড়ের সীমা বাড়িয়েছিল কেন্দ্র। এনপিএস থেকে তোলা টাকার ৬০ শতাংশ পর্যন্ত করছাড়ের সুযোগ নেওয়া যাবে বলে জানিয়েছিল সরকার। এ বার হয়তো সম্পূর্ণ প্রত্যাহারই আয়কর ছাড়ের আওতায় চলে যেতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.