‘ভারতের লৌহমানব’-এর সঙ্গে পায়ে পা মিলিয়ে দৌড়নো কি মুখের কথা ? তার ওপর তাঁর বয়স যদি ৭৫-এর বেশি হয়!

জুলাই মাসের শেষ বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছিল ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়া রান’। সেই দৌড়েই ছিলেন মিলিন্দ সোমন, যিনি ‘ভারতের লৌহমানব’ নামে খ্যাত। গত বছর এক ট্রায়াথেলন প্রতিযোগিতায় ১৫ ঘণ্টায় ৩.৮ কিমি সাঁতরে, ১৮০.২ কিমি সাইকেল চালিয়ে এবং ৪২.২  কিমি দৌড়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। সেই মিলিন্দের মা ৭৮ বছর বয়সি ঊষা সোমন ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়া রান’-এ সঙ্গী হয়েছিলেন ছেলের।

আমদাবাদ থেকে সিলভাসা হয়ে মুম্বই পর্যন্ত ৫৭০ কিলোমিটারের ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়া রান’ শেষ হল বৃহস্পতিবার সকালে। মহারাষ্ট্রের ম্যানর থেকে ঊষা সোমন তাঁর ছেলের সঙ্গে পা মেলান। শাড়ি পরে খালি পায়ে এই ৭৫-ঊর্ধ্ব ‘তরুণী’ সবাইকে চমকে দেন। এর আগেও তিনি একাধিক বার ১০০ কিলোমিটার হাঁটা প্রতিযোগিতায় যোগ দেন।  

হিন্দিতে একটি প্রবাদ আছে ‘বাপ কা বেটা সিপাই কা ঘোড়া কুছ নেহি তো থোড়া থোড়া’। এই মা-ছেলের যুগলবন্দি প্রবাদটির সত্যতা ‘থোড়া থোড়া’ প্রমাণ করল। মা ৭৮ বছর বয়সেও যদি এমন দমদার হন, তবে ছেলে তো লৌহমানব হবেনই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here