ওয়েবডেস্ক: বৃহস্পতিবার উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি এলাকায় ভারী বর্ষণ ও বজ্রপাতে (thunderstorms) বহু মানুষের হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। বিহারের (Bihar) বিভিন্ন জেলায় শেষ ২৪ ঘণ্টায় বজ্রপাতে কমপক্ষে ৮৩ জন এবং উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, বিহারের ৮৩ জন নিহতের মধ্যে ১৩ জনই গোপালগঞ্জ জেলায়। এ ছাড়া মধুবনী ও নবাদা জেলায় ৮ জন করে, ভাগলপুর ও সিওয়ানে ছ’জন করে এবং বাঁকা, দারভাঙা ও পূর্ব চম্পারণ জেলায় পাঁচজন করে নিহত হয়েছেন।

Loading videos...

এর বাইরে খাগরিয়া ও আওরঙ্গাবাদ জেলায় তিনজন করে, জহানাবাদ, কিশনগঞ্জ, পশ্চিম চম্পারণ, যমুই, পূর্ণিয়া, সুপৌল, কাইমুর ও বাক্সারে দু’জন করে এবং সরণ, শিবহর, সমতীপুর, মধেপুরা ও সীতামারীতে একজনের করে মৃত্যু হয়েছে।

গোপালগঞ্জের জেলাশাসক আরশাদ আজিজ জানিয়েছেন, “জেলার বিভিন্ন অংশে বাজ পড়ে ১২-১৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। সাধারণ মানুষকে অনুরোধ করা হচ্ছে, বৃষ্টির সময় বাড়ির বাইরে না বেরোতে। বাইরে থাকলেও গাছের নীচে দাঁড়াবেন না”।

বিহারে বর্ষা শুরু হওয়ার আগে থেকেই বিভিন্ন অঞ্চলে বজ্রপাত-সহ ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে বেশিরভাগই মাঠে চাষের কাজ করছিলেন। আহতদের হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে।

অন্য দিকে, উত্তরপ্রদেশেও করোনভাইরাস সংকটের মাঝে ভারী বৃষ্টিপাত এবং বজ্রপাতে ২৪ জন মারা গিয়েছেন। এর মধ্যে শুধুমাত্র দেওরিয়া জেলায় ন’জনের মৃত্যু হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের ত্রাণ কমিশনার সঞ্জয় গয়াল সংবাদ সংস্থা আইএএনএসকে বলেছেন, “বৃষ্টি ও বজ্রপাতের কারণে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বজ্রপাতে ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। কুশিনগর, উন্নাও, ফতেহপুরে একজন করে, দেওরিয়ায় ৯, বড়োবাঁকিতে ২, প্রয়াগরাজে ৬, আম্বেডকরনগরে ৩ এবং বলরামপুরে একজন মারা গিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.