তাজমহলের পার্কিং লটে বিশালাকার অজগর!

0
python

ওয়েবডেস্ক: তাজমহলের পার্কিং লটে আচমকা দেখা মিলল এক অজগরের। নজরে আসার পরই প্রায় ৯ ফুটের ওই সাপটিকে উদ্ধার করেন বন্যপ্রাণ সংস্থার কর্মীরা।

ঘটনাটি ঘটে তাজমহলের পশ্চিমমুখী পার্কিং লটে। শনিবার ভোরের দিকে এক নির্মাণ শ্রমিক প্রায় পা তুলে দিতে চলেছিলেন ইন্ডিয়ান রক পাইথনটির উপর। কোনো রকমে সেখান থেকে দৌড়ে পালান ওই শ্রমিক। পরে অজগরের কথা ছড়িয়ে পড়ে পর্যটকদের কানেও। চাপা উত্তেজনার সৃষ্টি হয় তাজমহল চত্বরে।

Loading videos...

তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই বন্যপ্রাণ বিভাগের কর্মীরা সেখান পৌঁছে অজগরটিকে উদ্ধার করেন। তার স্বাস্থ্যপরীক্ষার পর পুনরায় জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার ভোর আড়াইটা নাগাদ প্রথম দেখা যায় অজগরটিকে। এর পরই ওয়াইল্ড লাইফ এসএএস-এর আপদকালীন নম্বরে ফোন করা হয়।

ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকারী দল দেখে, কৌতুহলী জনতা ঘিরে রয়েছে সাপটিকে। সেখান থেকে আগ্রহী জনতাকে দূরে সরিয়ে দিয়ে উদ্ধারকারীরা আলতো করে সাপটিকে ধরে এবং বিশেষ গাড়িতে করে নিয়ে চলে যান। অজগরটিকে পুরোপুরি পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরে উপযুক্ত স্থানে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আগ্রার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অশোক কুমার বলেন, “আমরা সঙ্গে সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করি এবং তারা খুব দ্রুত উদ্ধার কাজ শুরু করে। আমরা তাদের কাজ সম্পর্কে সচেতন এবং সময় মতো সাহায্যের জন্য তাদের কাছে সাপটিকে পৌঁছে দিতে পেরে আনন্দিত”।

ওয়াইল্ডলাইফ এসওএস-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও কার্তিক সত্যনারায়ণ বলেন, “বিশাল সাপটিকে উদ্ধার করা সহজ কাজ ছিল না কারণ এটাকে একটা বিশাল জনতা ঘিরে রেখে ছিল, তারা এটাকে এক ঝলক দেখতে চেয়েছিল। আমরা কৃতজ্ঞ যে কর্তৃপক্ষ সময় মতো আমাদের কাছে খবর পৌঁছে দিয়েছিলেন। যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা সংঘটিত হওয়ার আগে আমাদের দল তাকে উদ্ধার করতে সফল হয়েছি। পুলিশ কর্মকর্তারা উত্তেজিত জনতাকে নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করেন”।

এসওএস-এর সংরক্ষণ প্রকল্পের পরিচালক বৈজু রাজ এমভি বলেন, “আমরা ধারণা করছি, অজগরটি তাজ মহলের বাইরে ঘুরে বেড়াত – এখানে বিভিন্ন বন্যপ্রাণী প্রজাতির উপস্থিতি রয়েছে। যদিও অ-বিষাক্ত অজগরটির কামড় ক্ষতিকারক হতে পারে। যে কারণে উপযুক্ত সতর্কতা অবলম্বন করে আমাদের পেশাগত ভাবে প্রশিক্ষিত দল সাপটিকে উদ্ধার করে”।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন