Jewellery Shop Owner

ওয়েবডেস্ক: ক্রেতা সেজে রাত ন’টা নাগাদ সোনার দোকানে প্রবেশ ওই দম্পতির। প্রায় ৪৫ মিনিট এটা-ওটা দেখার পরও কিছুই পছন্দ হল না। তার পরই প্রকাশ হল তাদের আসল রূপ।

হায়দরাবাদের জয় ভবানী জুয়েলার্সের মালিক বছর বত্রিশের জয়রাম পুলিশের কাছে জানিয়েছেন, ওই দম্পতিকে বিভিন্ন ধরনের অলঙ্কার দেখাচ্ছিলেন তিনি। এর পর আরও কিছু স্টক বের করার জন্য স্ট্রংরুম খুলতেও তারা জয়রামের উপর চড়াও হয়। কিন্তু সহজে দমে যাওয়ার পাত্র নন ওই সোনার দোকানি। তিনিও নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করতে থাকেন। পুরুষ দুষ্কৃতী আগ্নেয়াস্ত্র বের করার পরেও তিনি থেমে থাকনেনি। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, বোরখায় মুখ ঢাকা মহিলা দুষ্কৃতীটিও লাঠি দিয়ে জয়রামকে বেধড়ক পেটাচ্ছে। তবে আচমকা দেখা যায়, জয়রাম নিজের হাত দিয়ে চোখ দু’টোকে ঢেকে ধরা অবস্থায় যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন। লঙ্কাগুঁড়ো জাতীয় কোনো পদার্থ তাঁর চোখে ছুড়ে দেওয়ার পরই নিস্তেজ হয়ে পড়েন তিনি।

এর পর যা হওয়ার তাই হল। জয়রাম পুলিশকে জানিয়েছেন, ওই দুষ্কৃতীরা তাঁর দোকান থেকে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার সোনার গহনা এবং নগদ ৪ লক্ষ টাকা নিয়ে চম্পট দিয়েছে। পুলিশের অনুমান, দুষ্কৃতীরা যে পিস্তলটি ব্যবহার করেছিল, তা খেলনা হতে পারে। প্রাথমিক ভাবে সিসিটিভি ফুটেজ থেকে এমনটাই মত তাঁদের। তবে জয়রামের আঘাতে এক দুষ্কৃতী আহত হয়েছে। তার নাক দিয়ে রক্ত বের হতে দেখা গিয়েছে। ঘটনার পর স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় জয়রামকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here