তৈরি হবে মার্কেট কমপ্লেক্স, বারাণসীতে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল ভারতরত্ন বিসমিল্লা খানের বাড়ির একাংশ

0
bismillah khan house

খবরঅনলাইন ডেস্ক: তৈরি করা হবে কমপ্লেক্স বা বহুতল। আর তাই সংরক্ষণের বদলে ভেঙে ফেলা হল ভারতরত্ন ওস্তাদ বিসমিল্লা খানের বাড়ির একাংশ। জানা গিয়েছে, বিসমিল্লাহ খানের (Bismillah Khan) আত্মীয়রাই বাড়িটি ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আগামী ২১ আগস্ট তাঁর ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী। ঠিক তার আগেই এমন ঘটনায় হতাশ বিসমিল্লাহর অনুরাগীরা। সব থেকে হতাশাজনক ব্যাপার হল, ভেঙে পড়া অংশের মধ্যে রয়েছে বিসমিল্লা খানের রেওয়াজ ঘরও। 

বারাণসীর (Varanasi) হাদহা সরাইয়ের ওই বাড়িটির দোতলার একটি ঘরে প্রতিদিন রেওয়াজ করতেন বিসমিল্লা খান। কখনোই সেটি ছেড়ে যেতে চাননি। আমেরিকায় বসবাসের প্রস্তাব এলেও সেটা প্রত্যাখ্যান করতেও দু’ বার ভাবতে হয়নি তাঁকে।

২০০৬ সালে তাঁর মৃত্যুর পর শিষ্য এবং ভক্তরা দাবি করেছিলেন, এই বাড়িটিকে ‘‌হেরিটেজ’‌ তকমা দিয়ে এখানে সংগ্রহশালা তৈরি হোক। প্রদর্শিত হোক বিসমিল্লাহর বিভিন্ন স্মারক। কিন্তু কেউই এ বিষয়ে এগিয়ে আসেননি।

তাঁর পালিতা কন্যা ও সংগীতশিল্পী সোমা ঘোষ এই ঘটনার পর বিরক্তি প্রকাশ করে জানিয়েছেন, ‘‌‘‌বাবার ঘর ভেঙে দেওয়া হয়েছে, এটা শোনার পরই আমি ভেঙে পড়েছি। খুব অবাক হয়েছি। ভেঙে ফেলার পর তাঁর মহামূল্যবান জিনিসপত্রগুলোও ফেলে দেওয়া হয়েছে। ওই ঘরটি শুধুমাত্র একটি ঘর নয়, সংগীত অনুরাগীদের কাছে একটি পবিত্র স্থান ছিল। এটির একটি ঐতিহাসিক মূল্য রয়েছে। তাঁর সব জিনিসপত্র সংরক্ষিত করার জন্য যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আবেদন করব।’‌’‌

১৯৬৩ সালে হাদহা সরাইয়ের ভিক্ষমশাহ লেনের ধারে এই বাড়িটি কেনেন বিসমিল্লা খান। দোতলা বাড়ির উপরের একটি ঘরে, তিনি থাকতেন। রোজ স্নান করে ওই ঘরে রেওয়াজ করতেন তিনি।

গত ১২ অগস্ট ওই ঘরটি প্রথম ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ওই বাড়িটির মালিক ওস্তাদজির পাঁচ ছেলের এক ছেলে মেহতাব হোসেনের পুত্র। তাঁরা অবশ্য এই ঘটনার কথা অস্বীকার করেছেন।

খবরঅনলাইনে পড়তে পারেন

বিশ্বনাথের বারাণসী, বারাণসীর বিসমিল্লাহ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন