দুই শহরে ভেঙে পড়ল বাড়ি, মুম্বইয়ে মৃত ৮, কলকাতায় মৃত ২

0
187

মুম্বই : দেশের দুই প্রান্তের দুই মেট্রো শহরে ভেঙে পড়ল বাড়ি। মুম্বইয়ে একটি চারতলা বাড়ি একেবারে গুঁড়িয়ে যায়। মারা গেলেন আট জন। আর কলকাতায় একটি জীর্ণ বাড়ির একাংশ ভেঙে মারা গেলেন দু’ জন।

মুম্বইয়ে মৃতদের মধ্যে তিন জন মহিলা ও একটি তিন মাসের শিশু। ধ্বংসাবশেষের নীচে আটকে অন্তত পক্ষে ৩০ জন। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে মুম্বইয়ের ঘাটকোপারের দামোদর পার্ক এলাকায় লাল বাহাদুর শাস্ত্রী রোডে। শ্রেয়স সিনেমার কাছে দুর্ঘটনাগ্রস্ত এই বাড়িটির নাম সাইদর্শন। দমকল প্রধান প্রভাত রঙ্গডালে বলেন, ঘটনাস্থলে যায় দমকলের ১৪টা ইঞ্জিন, অ্যাম্বুলেন্স ও ২টো উদ্ধারকারী ভ্যান। এখনও পর্যন্ত ১২ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁদের অবস্থা স্থিতিশীল। বাকিদের উদ্ধারের কাজ চলছে। তিনি জানান, এ দিন সকাল ১০.৪৩ মিনিটে দফতরে একটা ফোন আসে। তাতেই এই ঘটনার খবর দেওয়া হয়।

রঙ্গডালে বলেন, উদ্ধারকারী দল, জওয়ান ও অন্য আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছেন। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধার কাজ চালানো হচ্ছে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা গেছে, বাড়িটির এক তলায় একটা নার্সিং হোম ছিল। এই বাড়িটি বেশ পুরোনো। এখানে বেশির ভাগ বাসিন্দাই বহু দিন থেকে বসবাস করছেন।

সমৃদ্ধি মায়েকর এক জন প্রত্যক্ষদর্শী। তিনি বলেন, বাড়িটি কাঁপতে দেখেন তিনি। তখনই অন্য এক জনকে ডেকে দেখান। কিন্তু সূত্রের মাধ্যমে জানা গেছে, এই বাড়িটিকে ‘জীর্ণ বাড়ি’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়নি।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে উপস্থিত হয়েছেন রাজ্য আবাসনমন্ত্রী প্রকাশ মেহেতা।

বউবাজারে পুরোনো বাড়ি ভেঙে মৃত ২।

কলকাতার বউবাজার এলাকায় মঙ্গলবার সকালে ভেঙে পড়ে একটি পুরোনো বাড়ির একাংশ। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় হান্স সাউ (২০) ও হিমাদ্রি পাহাড়ি (৩৮) নামে দুই ব্যক্তির। বাড়ি ভেঙে পড়ার খবর পেয়েই দমকলবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায়। পৌঁছোয় অ্যাম্বুল্যান্স ও উদ্ধারকারী দল। বাড়িতে আটকে পড়া বেশ কয়েক জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধারকাজ চলছে। এখনও কেউ কেউ আটকে আছেন।

১০ নম্বর ইন্ডিয়ান মিরর স্ট্রিটের ওই বাড়িটি বিপজ্জনক বাড়ি বলে ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু বাড়ির বাসিন্দারা ওই ঘোষণায় কান দেননি।

 

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here