Manmohan and Modi

নয়াদিল্লি: পূর্বসূরির দিকে নিজেই এগিয়ে এলেন বর্তমান। তার পর মৃদু স্বরে তাঁকে সম্ভাষণ জানিয়ে আলতো করে চেপে ধরলেন তাঁর হাত। যা যতটা না অবাক করেছে উপস্থিত রাজনীতিকদের তার থেকেও বেশি তাঁরা উপভোগ করেছেন এই আকস্মিক দৃশ্য। এই দৃশ্য যে তাঁদের কাছে স্মৃতির অ্যালবামে বাঁধিয়ে রাখার মতোই। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে তাঁকে প্রত্যুত্তর জানাতেও ছাড়লেন না প্রাক্তন মনমোহন সিংহ। অন্তত ইদানীং ঘটনাপ্রবাহের প্রেক্ষিতে এই সৌজন্য বিনিময়কে আচম্বিত বললেও ভুল হবে না।

সংসদের ভিতর হোক বা বাইরে, প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দলের নেতৃত্ব একে অপরকে আক্রমণে কম যান না। সাম্প্রতিক গুজরাত বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে পাকিস্তানকে টেনে নিয়ে এসে মোদী যে ভাবে মনমোহন সিংহকে আক্রমণ করেছিলেন, তা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। নির্বাচন মিটে যাওয়ার পরেও সেই আঁচ পৌঁছে ছিল সংসদের শীতকালীন অধিবেশনেও। প্রথম দিনেই কংগ্রেস মোদীর ক্ষমাপ্রার্থনার দাবিতে তুমুল প্রতিবাদ জানাতে শুরু করে। থমকে যায় সংসদের কাজ। এমনকী মৃদুভাষী মনমোহনও মন্তব্য করেন, তিনি এই অপপ্রচারের স্বীকার হয়ে মানসিক আঘাত পেয়েছেন। তাঁর কাজের খতিয়ান যে কোনো মানুষই জানেন।

স্বাভাবিক ভাবে আজ রাজ্যসভার অধিবেশন শেষে যখন উচ্চ কক্ষ থেকে বেরিয়ে মনমোহন নিজের গাড়ির দিকে এগোচ্ছেন, সে সময় আচমকা সেখানে আসেন মোদী। নিজে থেকেই পূর্বসুরির দিকে তিনি এগিয়ে গিয়ে প্রথমে সম্ভাষণ এবং তার পরেই করমর্দন করেন। মুখে স্মিত হাসির প্রলেপ লাগিয়ে মনমোহনও তাঁর সঙ্গে সৌজন্য বিনিময় করেন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন