ABVP

ওয়েবডেস্ক: অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (এবিভিপি)-র তরফে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সভাপতি অঙ্কিভ বৈশোয়াকে নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিতে বলে। পাশাপাশি ভুয়ো মার্কশিট-কাণ্ডের তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার আগেই তাঁকে সংগঠনের সদস্যপদ থেকে সাসপেন্ড করা হয়।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর অঙ্কিভ এনএসইউ-র প্রার্থী সানি ছিল্লরকে পরাজিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সভাপতিপদে নির্বাচিত হন। এর পরেই এনএসইউর তরফে দাবি করা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিষ্ট স্টাডিজ বিভাগে অঙ্কিভ থিরুভাল্লুভার বিশ্ববিদ্যালয়ের যে মার্কশিট দাখিল করেছেন, সেটা আদতে জাল শংসাপত্র। এমন অভিযোগ ওঠার পরই তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গড়ে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়। সেই তদন্ত এখনও শেষ হয়নি, এরই মধ্যে এ দিন তাঁর ইস্তফা এবং সাসপেনশন বিতর্কে নতুন মাত্রা যোগ করল।

এবিভিপির জাতীয় মিডিয়া কনভেনার মনিকা চৌধুরি জানান, “দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংসদ নির্বাচনে এবিভিপি ৩: ১ অনুপাতে জয়ী হয়। তার পর থেকেই অন্যান্য ছাত্র সংগঠনগুলি সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা মানপত্র নিয়ে একাধিক অভিযোগ তোলে। তাদের দাবি মেনে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তদন্ত চালাচ্ছে। কিন্তু তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই এ বিষয়ে বিভিন্ন রকমের জল্পনা ছড়াচ্ছে। ফলে সেই জল্পনায় ইতি টানতেই সভাপতি ইস্তফা দিলেন। আশা করা যায়, কর্তৃপক্ষের কাছে শংসাপত্র রাখা রয়েছে। তা প্রকাশ্যে এলেই বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে যাবে”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here