ওয়েবডেস্ক: খবর ছিল আগেই- কোমা-আক্রান্ত কন্যা পায়েলের অভিভাবকত্ব চেয়ে বম্বে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মৌসুমী চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর স্বামী জয়ন্ত মুখোপাধ্যায়। জামাই ডিকি সিনহার বিরুদ্ধে ছিল অভিযোগ- তিনি যেমন স্ত্রীর চিকিৎসা করাচ্ছেন না, তেমনই স্ত্রীর মা-বাবাকেও দেখা করতে দেন না মেয়ের সঙ্গে!

আরও পড়ুন: জেলাশাসক জামাইয়ের বাড়িতে ঢুকতে না পেরে মেয়েকে নিয়ে ধরনায় বসলেন শাশুড়ি

জানা গিয়েছে, শনিবার এই মামলার সুনানি হয়েছে বম্বে হাই কোর্টে। তবে কোর্ট স্পষ্ট করে কারও পক্ষে বা বিপক্ষে রায় দেয়নি। প্রাথমিক ভাবে আবেদন করেছে দুই পরিবারকেই- তাঁরা যেন নিজেদের মধ্যে কথা বলে বিষয়টি মিটিয়ে নেন! এ ব্যাপারে ডিকি সিনহা রাজি হয়েছেন, আপত্তি করেননি মৌসুমী এবং জয়ন্তও। কোর্টে কথা দিয়েছেন ডিকি- মৌসুমী এবং জয়ন্ত যখন ইচ্ছা মেয়েকে দেখতে যেতে পারবেন! যদিও পায়েলের চিকিৎসা ঠিক মতো হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখার জন্য চিকিৎসার সব কাগজ সোমবারের মধ্যে জমা করার নির্দেশ পেয়েছেন ডিকি!

 

View this post on Instagram

 

A Timeless beauty of an era!! #moushumichatterjee #beauty #yesteryear #actress #bollywood #gorgeous #goldenera

A post shared by Pictogram Workx Photography (@pictogram.workx) on

খবর বলছে, মৌসুমীর ছোটো মেয়ে পায়েল ছোটো থেকেই আক্রান্ত ছিলেন ডায়াবিটিসে। ২০১০ সালে তাঁর সঙ্গে বিয়ে হয় উদ্যোগপতি ডিকি সিনহার। সে সময়ে একই ফার্মে বাণিজ্যের দেখভাল করতেন জয়ন্ত, পায়েল এবং ডিকি। কিন্তু ২০১৬ সালে বাণিজ্য বিষয়ে কিছু মনোমালিন্য হওয়ায় দুই পরিবারের মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে। ফলে, ২০১৭ সালে যখন একেবারেই শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন পায়েল, মৌসুমী এবং জয়ন্ত তাঁর সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পান না!

 

View this post on Instagram

 

Happy Birthday to Moushumi Chatterjee #MoushumiChatterjee #Actress About: http://bit.ly/2qcEtWk

A post shared by CelebrityBorn (@celebrityborn) on

আবেদনে কোর্টকে জানিয়েছিলেন ভারতীয় ছবির গুরুত্বপূর্ণ এই নায়িকা- জামাই মেয়ের চিকিৎসার প্রতি যত্নবান নন! মেয়েকে স্রেফ বিছানায় ফেলে রেখেছেন তিনি! নার্সদেরও টাকা-পয়সা দেওয়া বন্ধ করে দেওয়ায় কোমা-আক্রান্ত মেয়ের পরিচর্যাটুকুও হচ্ছে না! এই অবস্থায় তাঁরা মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে গেলে রীতিমতো অপমানের সম্মুখীন হতে হয়। এর পরেই কোর্টের শরণাপন্ন হন নায়িকা! কোর্ট জানিয়েছে, ভবিষ্যতে কোনো সমস্যা হলে দুই পরিবারের জন্যই দরজা উন্মুক্ত রইল!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here