নির্মলা সীতারমণকে ‘নির্বলা’ নামে ডেকে বিতর্কে জড়ালেন অধীর চৌধুরী

প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: সংসদে কংগ্রেস দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরীর ভাষা আক্রমণ না কি ক্রমশ মাত্রা ছাড়াচ্ছে! প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে ‘অনুপ্রবেশকারী’ বলায় এমনিতেই সোমবারের সংসদ উত্তাল তাঁকে কেন্দ্র করে। একই দিনে ফের তিনি বিতর্কে জড়ালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণকে ‘নির্বলা’ নামে ডেকে।

বহরমপুরের সাংসদ সোমবার লোকসভায় রীতিমতো আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলেন, যখন তিনি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে ‘নির্বলা’ বলে ডাকেন।

সীতারমণকে কটাক্ষের সুরে অধীর বলেন, “যদিও আমি আপনাকে শ্রদ্ধা করি, মাঝে মাঝে আমার মনে হয় নির্মলার পরিবর্তে আপনাকে ‘নির্বলা’ বলা উচিত, কারণ আপনি এক জন মন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও সরকারের নীতি গ্রহণে নিজের মতকে বেশি জোর দিতে পারবেন না”।

এ দিন কর্পোরেট কর কমানোর বিষয়ে বিতর্কের জবাব দিচ্ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, “কর্পোরেট কর হ্রাস করার বিষয়ে সরকারি পদক্ষেপের ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধের কারণে সংস্থাগুলি চিন থেকে বেরিয়ে যেতে চেয়েছিল”।

এর আগে বিজেপি সাংসদরা অধীরের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে “অনুপ্রবেশকারী” আখ্যা দেওয়ার প্রতিবাদ জানান। অধীরের ক্ষমাপ্রার্থনার দাবিতে তাঁরা সরব হন। একই সঙ্গে বিজেপি সদস্যরা অধীরকে পশ্চিমবঙ্গে একটি “সিন্ডিকেট” চালানোর অভিযোগেও অভিযুক্ত করেন। তাঁরা বলেন, ওই সিন্ডিকেট বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের ভারতীয় নাগরিক হতে সহায়তা করছে।

প্রশ্নোত্তর চলাকালীন, যখন অধীর ইস্পাত মন্ত্রক সম্পর্কিত একটি প্রশ্ন করতে উঠেছিলেন, ক্ষমতাসীন জোটের সদস্যরা বেশ কয়েকবার “অনুপ্রবেশকারী” শব্দটি উচ্চারণ করে তাঁকে বিদ্রূপ করার চেষ্টাও করেন।

কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম এবং ইস্পাতমন্ত্রী ধরেন্দ্র প্রধান অধীরকে উদ্দেশ্য করে বলতে বাধ্য হন, “সব প্রকাশ্যে আসবে, আপনার ভাষায় দেশ চলবে না”।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.