মুম্বই: ২০১৬ রেল বাজেটে ঘোষণা করা হয়েছিল মুম্বইয়ের পরেল এবং এলফিনস্টোন রোড স্টেশনের সংযোগকারী ফুটব্রিজের চেয়ে আটগুণ চওড়া একটি ফুটব্রিজ তৈরি করা হবে সেখানে। কিন্তু দ্রুতগতির বুলেট ট্রেন হবে যে নগরে, সেখানে গতি হারিয়েছিল এই ধরনের ফুটব্রিজ সংস্কারের কাজ। লাল ফিতের ফাঁসে আটকা পড়েছিল ফাইল।

মর্মান্তিক দুর্ঘটনার ২৩ জনের মৃত্যুর পর টনক নড়েছে রেলের। লাল ফিতের ফাঁস ছিঁড়ে দ্রুত ফুটব্রিজ তৈরির কাজ শুরু করতে নতুন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়াল আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছেন। সময়সীমা দিয়েছেন এক সপ্তাহ। রেলের সব বিভাগের কর্তাদের নিয়ে একটি টিম তৈরি করতে বলেছেন তিনি। ওই ধরনের যত ফুটব্রিজ আছে সেগুলিকে এক সপ্তাহের মধ্যে চিহ্নিত করে তা দ্রুত সংস্কারের ব্যবস্থা করতে বলেছেন পীযূষ গোয়াল।

এনডিটিভি জানাচ্ছে, গত চার বছরে এই ধরনের রেলব্রিজের অবস্থার কথা জানিয়ে পূর্বতন রেমমন্ত্রী সুরেশ প্রভুকে ট্যাগ করে প্রায় ১০০ টুইট করেছেন রেলযাত্রীরা। তার মধ্যে গত এক বছরে  পরেল এবং এলফিনস্টোন রোড স্টেশনের সংযোগকারী ফুটব্রিজের অবস্থা জানিয়ে একাধিক টুইট হয়েছিল। ট্যাগ করা হয়েছিল প্রধানমন্ত্রীকেও। যাত্রীরা এক বছর ধরে জানিয়ে আসছিলেন যে কোনো মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে পদপিষ্ট হয়ে যাওয়ার মতো বিপদ। তা সত্ত্বেও শুধু ঘোষণা ছাড়া কোনো হেলদোল দেখা যায়নি রেলের।

ব্রিজটির অবস্থা নিয়ে গত বছর রেলমন্ত্রককে চিঠিও দিয়েছিলেন শিবসেনা সাংসদ অরবিন্দ সাবন্ত। ২০১৬-র ফেব্রুয়ারি মাসে একটি চিঠি দিয়ে রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু আশ্বাস দিয়েছিলেন ব্রিজটি চাওড়া করা হবে। কিন্তু অর্থের অভাব এবং বেশ কিছু সীমাবদ্ধতার জন্য কাজটি শুরু করা যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন : মুম্বইয়ে রেলস্টেশনের ফুটব্রিজে পদপিষ্ট হয়ে হত ২২ 

দুর্ঘটনার পর এক শিবসেনা নেতা প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেছেন, ‘‘বুলেট ট্রেনের জন্য টাকা আছে, ব্রিজ সারানোর জন্য টাকা নেই। গরিব যাত্রীরা মরবে আর আপনি বড়লোক যাত্রীদের জন্য বুলেট ট্রেনের কথা বলবেন।’’

প্রশ্ন উঠেছে রেলের ‘সেফটি অডিট’-এর পদ্ধতি নিয়েও

পশ্চিম রেল বছরে দু’বার এই ধরনের ফুটব্রিজ-সহ রেলের সমস্ত স্টিলের কাঠামোর ‘সেফটি অডিট’ করে। সেই অডিট টিম রিপোর্ট দেয়, পরেল এবং এলফিনস্টোন রোড স্টেশনের সংযোগকারী ফুটব্রিজটি কাঠামোর দিক থেকে নিরাপদ। কিন্তু কাঠামো কতটা মজবুত সেটাই নিরাপত্তার শেষ কথা নয় তা বুঝিয়ে দিয়েছে শুক্রবারের দুর্ঘটনা।

যে সব স্টেশনে যাত্রীর চাপ বেশি সেখানকার ফুটব্রিজগুলির অবস্থা খতিয়ে দেখে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে এবং আধিকারিকরা যাতে  পরিস্থিতির ওপর নজরে রাখতে পারেন তার জন্য ফুটব্রিজগুলিতে সিসিটিভি বসাতে রেলমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here