ATM India

ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রের নতুন প্রস্তাব লাগু হলেই রাত ন’টার পর আর শহরের কোনো এটিএমে নগদ টাকা ভরা হবে না। যতই চাহিদা থাক, রাতে যতই টান পড়ুক নোটে, তবুও ওই নির্দিষ্ট সময়ে নতুন করে টাকা ভরতে আসবে না সংশ্লিষ্ট বেসরকারি নিরাপত্তা এজেন্সি। সম্প্রতি দেশের কয়েকটি জায়গায় বরাতপ্রাপ্ত নিরাপত্তা সংস্থার কর্মীদের উপর দুষ্কৃতী হানার পরিপ্রেক্ষিতেই এমন প্রস্তাব পেশ করেছে সরকার।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে জানানো হয়েছে, সাধারণত শহুরে এলাকাগুলিতে এই সময়সীমা রাত ন’টা হলেও মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকায় এই সময় আরও এগিয়ে নিয়ে আসার কথা বলা হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী ওই সব অঞ্চলের কিছু জায়গায় বিকাল চারটে এবং কোনো জায়গায় সন্ধ্যে ছ’টার মধ্যে সারতে হবে এই কাজ। নতুন এই প্রস্তাব আইনমন্ত্রকে পাঠানো হবে। সেখানে পাশ হয়ে গেলেই বিভিন্ন রাজ্য সরকারগুলিকে নির্দেশিকা আকারে পাঠানো হবে ওই প্রস্তাব। রাজ্য সরকারগুলির সংশ্লিষ্ট সংস্থা এই কাজে নিযুক্ত এজন্সিগুলিকে যাবতীয় নিয়ম ও আইন মেনে চলার ব্যাপারে সজাগ রাখবে।

মন্ত্রক জানিয়েছে, ব্যাঙ্ক খোলার পর প্রথমার্ধে এজেন্সিগুলি নগদ সংগ্রহ করতে পারবে। এবং প্রতিটি এজেন্সির জন্য এক দিনে সংগৃহীত সর্বোচ্চ অর্থের পরিমাণ হবে পাঁচ কোটি টাকা। তারা প্রতিটি ক্ষেপে সর্বোচ্চ পাঁচ লক্ষ টাকা বহণ করে এটিএমে পৌঁছে দিতে পারবে। পূর্ব নির্ধারিত নিয়মের সঙ্গেই প্রতিটি ভ্যানে থাকতে হবে একজন চালক, দু’জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বন্দুকধারী নিপারত্তাকর্মী এবং দু’জন এটিএম অফিসার। প্রতিটি ভ্যানে থাকবে পৃথক দু’টি কক্ষ। একটিতে নগদ এবং অন্যটিতে থাকবেন কর্মীরা।

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে প্রায় ৮হাজার ভ্যান সারা দিনে ১৫ হাজার কোটি টাকা পরিবহণ করে থাকে। তারা মূলত ব্যাঙ্ক, টাঁকশাল এবং এটিএমগুলির সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করে। দিনের শেষে প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকা তারা গচ্ছিত রাখে নিজেদের হেফাজতে। যা পর দিন সকালে বিতরণ করে থাকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here