৩৭০ ধারা প্রত্যাহার এবং রামমন্দিরের পর বিজেপির পরবর্তী ইস্যু কী?

0
BJP

ওয়েবডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার এবং অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণে সুপ্রিম কোর্টের আদেশের পর কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির আগামী লক্ষ্য কী?

গত ৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারে অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। তার পরই তা রাষ্ট্রপতির শিলমোহরও পেয়ে যায়। ওই রাজ্য থেকে বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার পরই পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল নির্মাণের প্রক্রিয়াও সম্পূর্ণ হয়ে গিয়েছে।

এর পরেই গত ৯ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যার দীর্ঘদিনের বিতর্কিত জমি মামলার রায় ঘোষণা করে। শীর্ষ আদালত জানায়, বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি পাবে হিন্দুরা, অন্য দিকে মসজিদ নির্মাণের জন্য বিকল্প পাঁচ একর জমি পাবে মুসলমানরা।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বিজেপির সামনে এই দু’টি ইস্যুই ছিল অন্যতম। ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটের প্রচারেও এই দুই ইস্যু উঠেছিল বিজেপির প্রচারে। স্বাভাবিক ভাবেই দুই ইস্যু চরম পরিণতির দিকে যাওয়ার পর বিজেপির পরবর্তী ইস্যু কী? এখন উঠে আসছে, সেই প্রশ্নই।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এর পরেই বিজেপির সামনে অন্যতম ইস্যু হিসাবে রয়েছে মুসলিম পারিবারিক আইন। এই আইন বাতিল করে অভিন্ন দেওয়ানি আইন নিয়ে আসার চেষ্টা চলছে বিজেপির অন্দরে। একই সঙ্গে নাগরিকত্ব বিল এবং অসমের পর বাকি রাজ্যেও জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি নিয়ে এগোতে চাইছে বিজেপি।

আগামী সোমবার থেকেই শুরু হচ্ছে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন। ওই অধিবেশনের কার্যতালিকায় নাগরিকত্ব সংশোধন বিল অন্তর্ভুক্ত রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রস্তাবিত বিল নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও সরকারি ভাবে এই বিল নিয়ে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে কেন্দ্র। স্বাভাবিক ভাবেই পরবর্তী ইস্যুগুলির মধ্যে বিজেপি এই বিলকেও পাখির চোখ করেছে।

তবে অভিন্ন দেওয়ানি আইন পাশ নিয়ে জটিলতা থাকলেও যথেষ্ট গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। দেশের দেওয়ানি আইনে ধর্মের ভিত্তিতে বেশ কিছু নিয়ম বজায় রয়েছে। যেমন পারিবারিক সম্পত্তির ভাগাভাগি এবং বিয়ে নিয়ে ধর্মীয় বিধিনিষেধের প্রভাব রয়েছে। এই ভেদাভেদ মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা চলছে কেন্দ্রের তরফে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.