নয়াদিল্লি: বিমানকর্মীকে চটি পেটানোর শাস্তিস্বরূপ দিন পনেরো বিমান চড়তে পারেননি সাংসদ রবীন্দ্র গায়কোয়াড়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে দুঃখ প্রকাশ করে চিঠি দেওয়ার পর সদ্য সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে শিবসেনা সাংসদের ওপর থেকে। কিন্তু যাত্রী সুরক্ষা এবং কর্মীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই এ বার নড়েচড়ে বসল কেন্দ্র। বিমানে অসংযত আচরণকারী যাত্রীদের জন্য নো-ফ্লাই তালিকা তৈরির কথা ভাবছে ভারত সরকার। অসামরিক বিমান চলাচল বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জয়ন্ত সিনহা এ কথা জানিয়েছেন।

শনিবার একগুচ্ছ টুইটের উত্তরে মন্ত্রী সিনহা বলেন, “বিমানযাত্রীর সুরক্ষা এবং নিরাপত্তার বিষয়ই আমাদের কাছে অগ্রাধিকার পায়। নিয়মভঙ্গকারী যাত্রীর ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে প্রশাসনিক পদক্ষেপ নেওয়া হবে এবং প্রয়োজন হলে সে যাত্রীকে নো-ফ্লাই তালিকাভুক্ত করা হবে”। মন্ত্রী একাধিক বার উল্লেখ করেছেন, বিমানের সুরক্ষা ব্যবস্থা উন্নত করতেই এই নো-ফ্লাই তালিকার সিদ্ধান্ত।

বিমানযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা ওঠানোর পর গায়কোয়াড় প্রসঙ্গে এই প্রথম মুখ খুলল কেন্দ্র। শনিবার প্রতিমন্ত্রী বললেন, “গায়কোয়াড়ের বিরুদ্ধে ৩০৮ এবং ৩৫৫ নম্বর ধারায় অভিযোগ করা হয়েছে। ২৩ মার্চের ঘটনার তদন্ত চলছে”।

তবে কেন্দ্র থেকে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, ভবিষ্যতে এ রকম ঘটনা এড়াতেই নো-ফ্লাই তালিকার পরিকল্পনা করেছে সরকার। অতীতের কোনো ঘটনা গণ্য হবে না এ ক্ষেত্রে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here