নতুন নাগরিকত্ব আইনকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে জরুরি শুনানির আবেদন মহুয়া মৈত্রের

0

ওয়েবডেস্ক: নাগরিকত্ব (সংশোধনী) আইন, ২০১৯-এর বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে গেলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। কৃষ্ণনগরের সাংসদ নিজের আবেদনে জরুরি শুনানি চেয়েছিলেন। কিন্তু প্রধান বিচারপতি অরবিন্দ শরদ বোবদে তাঁর আইনজীবীকে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের সামনে বিষয়টি উল্লেখ করতে বলেন।

লোকসভা এবং রাজ্যসভায় পাশ হওয়ার পর নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল, ২০১৯-কে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ বৃহস্পতিবার অনুমোদনের মাধ্যমে আইনে রূপান্তরিত করেন। এর পরই আইনটির বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতে যান মহুয়া।

আবেদনে তিনি জানান, জরুরি ভিত্তিতে বিষয়টির শুনানি করা হোক। আজ শুক্রবার, আগামী শনি ও রবিবার সম্ভব নয়। ফলে এ দিন সম্ভব না হলেও আগামী ১৬ ডিসেম্বর আবেদনের উপর শুনানি হোক। যদিও প্রধান বিচারপতি আবেদনটি নিয়ে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকের (মেনশনিং অফিসার) কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

এর পরই সুপ্রিম কোর্টে একই আবেদন নিয়ে পৌঁছান কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ। তিনিও আইনটির বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আবেদনে তিনি জানিয়েছেন, এই আইনটি সমানাধিকারের বিষয়টিকে লঙ্ঘন করছে। প্রতিবেশী দেশ থেকে শুধুমাত্র মুসলমানদের নাগরিকত্ব রোধ করার মাধ্যমে আইনটি নিজের বৈধতা হারিয়েছে।

এর আগেই এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছে ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ। আর্জিতে তারা বলেছে, প্রস্তাবিত এই আইন ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্বে অনুমোদন দিয়ে সংবিধান লঙ্ঘন করছে।

[ আরও পড়ুন: ভারত-জাপান বার্ষিক শীর্ষ সম্মেলন বাতিল, ঘোষণা বিদেশমন্ত্রকের ]

প্রসঙ্গত, গত বুধবার রাজ্যসভায় পাশ হয় নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল ২০১৯। বিলের পক্ষে ভোট পড়ে ১২৫টি, অন্য দিকে বিপক্ষে ১০৫টি। গত সোমবার লোকসভায় এই বিল পাশ হয়েছিল। বৃহস্পতিবার বিলে সম্মতি জানিয়ে সেটিকে আইনে পরিণত করেন রাষ্ট্রপতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.