bjp tdp alliance

হায়দরাবাদ: কিছু দিন আগেই এনডিএ থেকে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিবসেনা। এ বার সেই পথেই হাঁটার ইঙ্গিত দিয়েছে বিজেপির দ্বিতীয় বৃহত্তম জোটসঙ্গী তেলুগু দেশম (টিডিপি)। কেন্দ্রীয় বাজেটে অন্ধ্রকে অবজ্ঞা করার অভিযোগ করেছে টিডিপি।

বৃহস্পতিবার বাজেট শেষের পরেই দিল্লিতে নিজেদের দলীয় সাংসদদের সঙ্গে কথা বলেন দলের সভাপতি তথা অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইড়ু। সাংসদরা চন্দ্রবাবুর কাছে অভিযোগ করে বলেন, বাজেটে তাঁরা যথেষ্ট হতাশ। এই বাজেটে অন্ধ্রপ্রদেশকে পুরোপুরি অবজ্ঞা করা হয়েছে। অন্ধ্রকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি কেন্দ্র রাখেনি বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা।

সাংসদদের অভিযোগ ছিল, অমরাবতীকে অন্ধ্রের নতুন রাজধানী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কোনো অর্থ বরাদ্দ করেনি কেন্দ্র। বিশাখাপত্তনমকে কেন্দ্র করে রেলের নতুন জোন তৈরি করারও কোনো প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়নি। এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে টিডিপি সাংসদ টিজি বেঙ্কটেশ বলেন, “আমাদের কাছে তিনটে পথ রয়েছে, ১) জোট চালিয়ে যাওয়া, ২) সাংসদদের পদত্যাগ করতে বলা এবং ৩) জোট ছেড়ে বেরিয়ে আসা।”

এই সাংসদ জানান, রবিবার বিজয়ওয়াড়ায় দলীয় সাংসদদের নিয়ে জরুরি বৈঠকের ডাক দিয়েছেন চন্দ্রবাবু। জোট থেকে বেরিয়ে আসার ইঙ্গিত দিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা টিডিপি নেতা ওয়াইএস চৌধুরী বলেন, “বাজেটে আমরা পুরোপুরি হতাশ। রবিবার সঠিক একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আমরা যা কিছু বলিদান করতে রাজি।”

অন্ধ্রের কৃষিমন্ত্রী চন্দ্রমোহন রেড্ডি বলেন, “এটা যে হেতু এই সরকারের শেষ পূর্ণাঙ্গ বাজেট, আমরা ভেবেছিলাম আমাদের রাজ্যের প্রতি বরাদ্দে অনেক নমনীয়তা দেখাবে কেন্দ্র। কিন্তু সেটা তারা করেনি।” দু’ দিনের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত বছর লোকসভা নির্বাচনে জোট হিসেবে ৩৩৩টা আসন পেয়েছিল এনডিএ। এর মধ্যে শিবসেনার ১৮ এবং টিডিপির ১৬টা আসন রয়েছে। শিবসেনা জোট ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছে, এখন টিডিপি বেরিয়ে গেলে এনডিএ সংকটে পড়বে না ঠিকই, কিন্তু বিজেপির ওপরে ২০১৯-এর নির্বাচনের আগে যথেষ্ট চাপ বাড়বে। এর পাশাপাশি পঞ্জাবে অকালি দলও মাঝেমধ্যেই বিজেপির অস্বস্তি বাড়াচ্ছে বলে খবর।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন