tripple talaq bill

নয়াদিল্লি : তিন তালাক হল ১৪০০ বছর ধরে মেনে আসা একটা বহু পুরোনো রীতি। এটা বিশ্বাসের ব্যাপার। এর সঙ্গে সংবিধানের নৈতিকতা বা সাম্যের কোনো সম্পর্ক নেই। ‘অল ইন্ডিয়া মুসলিম ল বোর্ড’ (এআইএমএলবি)-এর হয়ে মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে এ কথা বললেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী ও আইনজীবী কপিল সিব্বল।

 

পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চকে সিব্বল বলেন, হিন্দুরা যেমন বিশ্বাস করেন রামচন্দ্রের জন্মভূমি অযোধ্যা। ঠিক তেমনই তিন তালাকও মুসলিমদের একটা বিশ্বাস।

 

প্রধান বিচারপতি জে এস খেহরের বেঞ্চকে এআইএমএলবির তরফে বলা হয়, মুসলিমদের বিয়েটা একটা চুক্তি। আবার বিবাহবিচ্ছেদও একটা চুক্তি। দু’জন প্রাপ্তবয়স্কের মধ্যে সম্মতির ভিত্তিতে এটা হয়। এর জন্যই নিকাহনামা। আর এতে অন্যদের আপত্তি থাকতে পারে না।  সিব্বল দাবি করেন, ‘হাদিত’-এ এর উল্লেখ আছে। নবী মহম্মদের সময়ের পর থেকে এর প্রচলন শুরু হয়। কারোর বিশ্বাসে আদালত নাক গলাতে পারে না।

 

এই বিষয়ে সোমবার কেন্দ্র জানায়, সুপ্রিম কোর্ট এই তিন তালাক বাতিল করে দিলে মুসলিমদের জন্য নতুন বিবাহবিচ্ছেদ আইন প্রণয়ন করা হবে।

আরও পড়ুন : তিন তালাক নিষিদ্ধ হলে নতুন আইন আনা হবে, শীর্ষ আদালতে বলল কেন্দ্র

উল্লেখ্য, মুসলিমদের তিন তালাক, বহু বিবাহ ও নিকাহ-হালাল নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা বিতর্কের ইতি টানতে গ্রীষ্মের ছুটিতে ১১ মের পর থেকে শুনানি চলবে বলে জানিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার ছিল এর চতুর্থ দিন। এই মামলার শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্টে পাঁচ ভিন্ন ধর্ম সম্প্রদায়ের সদস্যের একটি বেঞ্চ গঠন করা হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন