কপিল সিবালের বাড়িতে বিরোধী নেতৃত্বের নৈশভোজ, গান্ধীদের নেতৃত্ব নিয়ে উঠল প্রশ্ন

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিরোধী নেতৃত্বকে নিয়ে নিজের বাড়িতে নৈশভোজের আসর জমালেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা প্রবীণ কংগ্রেস নেতা কপিল সিবাল। মূলত, নিজের জন্মদিন উদযাপনই ছিল এই নৈশভোজের মূল কারণ। কিন্তু আদতে এটা বিজেপি বিরোধী নেতৃত্বের এক মিলনস্থল হয়ে উঠেছিল।

আগামী দিনে বিরোধী ঐক্য কী ভাবে এগোবে, তা নিয়ে আলোচনা যেমন হয়, তেমনই কংগ্রেসকে শক্তিশালী করার প্রসঙ্গও উঠে আসে। আমন্ত্রিতদের মধ্যে কেউ কেউ গান্ধীদের নেতৃত্ব নিয়েও প্রশ্ন তুলে দেন। তবে সনিয়া, রাহুল বা প্রিয়ঙ্কা- গান্ধী পরিবারের কেউই এই নৈশভোজে হাজির ছিলেন না।

উল্লেখ্য, কংগ্রেস যে বিদ্রোহী ‘২৩ জনের গোষ্ঠী’ রয়েছে, তাদের অন্যতম সদস্য সিবাল। গান্ধীদের নেতৃত্ব নিয়ে সরাসরি তিনি প্রশ্ন তুলে দিয়েছিলেন গত বছর। এই নিয়ে বিস্তর জলঘোলাও হয়। দলে অভ্যন্তরীণ নির্বাচনেরও দাবি জানাতে থাকেন তিনি।

এ দিনের নৈশভোজে কংগ্রেসের তরফে উপস্থিত ছিলেন পি চিদাম্বরম, শশী তরুর এবং আনন্দ শর্মা। এই তিন জনই কিন্তু কংগ্রেসের ভেতরে পরিবর্তনের দাবি জানিয়ে সরব হচ্ছেন।

আমন্ত্রিতদের মধ্যে নৈশভোজে ছিলেন আরজেডির লালুপ্রসাদ যাদব, সমাজবাদী পার্টির অখিলেশ যাদব, শিবসেনার সঞ্জয় রাউত, এনসিপির শরদ পাওয়ার, তৃণমূলের ডেরেক ও’ব্রায়ান এবং ন্যাশনাল কনফারেন্সের ওমর আবদুল্লাহ।

হাজির ছিল অকালি, বিজেডি

তবে চমকপ্রদ ব্যাপার হল এই নৈশভোজের আমন্ত্রণ রক্ষা করেছে অকালি দল এবং নবীন পট্টনায়কের বিজু জনতা দলও। অকালির তরফে উপস্থিত ছিলেন নরেশ গুজরাল। বিজেডির তরফে ছিলেন পিনাকী মিশ্র। উল্লেখ্য, কেন্দ্রকে ইস্যুভিত্তিক সমর্থন করে বিজেডি।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েই এই নৈশভোজের আসরকে এক সুতোয় বেঁধে দেন সিবাল। বিজেপিকে পরাস্ত করতে হলে সব বিরোধী দলকে এক যোগে কাজ করতে হবে বলেও জানান তিনি।

কংগ্রেসকে শক্তিশালী করার দাবি করেন ওমর আবদুল্লাহ। তিনি বলেন, কংগ্রেস শক্তিশালী হলেই বাকি বিরোধী দল আপসেই শক্তিশালী হয়ে যাবে। কংগ্রেসকে শক্তিশালী করার জন্য কী কী পদক্ষেপ করা হচ্ছে সেটা সিবালের কাছে জানতে চান জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

এর পরেই গান্ধীদের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানান নরেশ গুজরাল। তিনি বলেন, কংগ্রেস যত দিন না গান্ধী পরিবারের ছত্রছায়া থেকে বেরোবে, তত দিন পর্যন্ত দলকে কোনো ভাবেই শক্তিশালী করা যাবে না। অন্য দিকে, দীর্ঘদিন পর বিরোধী নেতাদের সঙ্গে দেখা গেল লালুকে। বিজেপিকে হারানোর জন্য সব দলকে এক সঙ্গে কাজ করার আহ্বান করেন লালু।

এই জমায়েত থেকেই অখিলেশ যাদবকে আসন্ন উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের জন্য শুভেচ্ছা জানানো হয়। অখিলেশ কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করবেন না জানালেও, উত্তরপ্রদেশে বিজেপি বিরোধী মুখ যে তিনিই, সেটা অস্বীকার করার কোনো জায়গাই নেই।

আরও পড়তে পারেন

বৈদ্যুতিক গাড়ি নিয়ে সদিচ্ছা দেখিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ-সহ ১৩টি রাজ্য, সংসদে জানাল কেন্দ্র

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন