কাশ্মীরিদের প্রতিক্রিয়া কী? অমিতকে রিপোর্ট ডোভালের

৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করে দেওয়া এবং কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করে দেওয়ার পক্ষে রাজ্যসভায় সোমবার বিকেলে বিস্তারিত বিবৃতি দেন অমিত।

0

শ্রীনগর: সংবিধানের ৩৭০ নম্বর অনুচ্ছেদ রদ করে দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত কেন্দ্র নিয়েছে তাতে কাশ্মীরিদের কোনো বিরূপ প্রতিক্রিয়া নেই। এমনকি জম্মু-কাশ্মীরকে পুনরায় রাজ্য করে দেওয়ারও যে আশ্বাস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দিয়েছেন, তাকে স্বাগতই জানিয়েছেন শ্রীনগরের স্থানীয়রা। অমিত শাহের কাছে এমনই রিপোর্ট দিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল।

৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করে দেওয়া এবং কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করে দেওয়ার পক্ষে রাজ্যসভায় সোমবার বিকেলে বিস্তারিত বিবৃতি দেন অমিত। তার কিছুক্ষণ আগেই শ্রীনগরে পৌঁছোন ডোভাল। রাজ্যসভায় শাহ বলেন, কাশ্মীরকে বরাবরের জন্য কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার পক্ষে নয় কেন্দ্র। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে গেলেই আবার রাজ্য করে দেওয়া হবে জম্মু-কাশ্মীরকে।

ডোভাল যে রিপোর্ট শাহের কাছে পাঠিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে শাহের এই আশ্বাস ভালো ভাবেই নিয়েছেন স্থানীয়রা।

উল্লেখ্য, ৯০-এর দশকে যখন সন্ত্রাসবাদের বাড়বাড়ন্ত শুরু কাশ্মীরে, তখন থেকেই কাশ্মীরকে কার্যত ঘরবাড়ি করেছেন ডোভাল। সন্ত্রাসবাদের অনেক কিছুই দেখেছেন তিনি। সোমবার কাশ্মীর পৌঁছে প্রথমে সেনা, কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং পুলিশ প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডোভাল। এর পর স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গেও আলোচনা করেন। পরিস্থিতি বোঝার চেষ্টা করেন।

আরও পড়ুন ‘ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়’ আখ্যা দিয়েও কাশ্মীর নিয়ে বিশেষ আবেদন আমেরিকার

ডোভাল জানিয়েছেন, এই পরিবর্তন যে পূর্বপরিকল্পিত, সেটা বুঝে গিয়েছেন উপত্যকার মানুষজন, আর তাই নতুন করে কিছু বোঝার দরকার পড়েনি। তিনি এ-ও বলেছেন যে এই সিদ্ধান্তের পর উপত্যকার কোথাও কোনো প্রতিবাদ হয়নি। সাধারণ মানুষ নিরাপত্তাবাহিনীর বেষ্টনীর মধ্যেও কাজকর্ম করছেন বলে জানানো হয়েছে।

গত কয়েক দিন ধরে কাশ্মীর উপত্যকার ওপরে সেনার প্রচুর হেলিকপ্টার এসেছে। সেই কপ্টারে উপত্যকার জন্য খাদ্য এবং ওষুধসামগ্রী পাঠানো হয়েছে। ফলে সাধারণ মানুষের মধ্যে খাবার আকাল হবে না বলেই জানিয়েছেন তিনি।

ডোভালের এই রিপোর্টের পর মনে করা হচ্ছে, হয়তো এই দু’টি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের পর কোনো বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যাবে না কাশ্মীর উপত্যকায়। উপত্যকায় হিংসা-হানাহানি বন্ধ হওয়াই এই মুহূর্তে কাম্য গোটা ভারতের কাছে।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.