কপাল পুড়ল অজিত পওয়ারের

0

ওয়েবডেস্ক: রাজনীতির ময়দানে চমকের থেকেও যে অনেকটাই বেশি গুরুত্ব অভিজ্ঞতার, সেটাই ফের এক বার প্রমাণ করলেন এনসিপি প্রধান শরদ পওয়ার। তাঁরই কৌশলে মাত্র ৮০ ঘণ্টার মধ্যে মহারাষ্ট্রে বিজেপি সরকারের পতনের পাশাপাশি রাজনীতিতে প্রায় ব্রাত্যই হয়ে পড়লেন ভাইপো অজিত।

গত শনিবার গোপনে বিজেপির দেবেন্দ্র ফডনবিসের সঙ্গে রাজভবনে গিয়ে উপ-মুখ্যমন্ত্রীপদে শপথ নিয়েছিলেন অজিত। ওই দিন বিকেলেই তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয় এনসিপির পরিষদীয় দলনেতার পদ থেকে। তাতে বিন্দুমাত্র বিচলিত হননি অজিত। এক নাগাড়ে দাবি করে গিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে এনসিপি সমস্ত বিধায়ক রয়েছেন। এমনকী, প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠেন তিনি। ঘূণাক্ষরে ভাবতেও পারেননি, জাতীয় স্তরের রাজনীতিতে প্রথমসারির নেতা হিসাবে পরিচিত শরদ কোন বাণ নিক্ষেপ করছেন তাঁর ভাগ্যকে লক্ষ্য করে।

শোনা যায়, এ দিন সকালেই ভাইপোর সঙ্গে দেখা করেন শরদ। তাঁকে ফিরে আসার অনুরোধ করেন। সঙ্গে তিনি আর কোন ‘রাজনৈতিক ব্যাখ্যা’ তাঁর কানে ঢেলে দেন, সেটা নিতান্তই তাঁদের ব্যক্তিগত।

[ আরও পড়ুন: আস্থাভোটের আগেই মহারাষ্ট্রে পড়ে গেল ‘বিজেপি সরকার’ ]

সূত্রের খবর, এ দিন সন্ধ্যায় সরকার গঠনের প্রক্রিয়া নিয়ে বৈঠকে বসছেন কংগ্রেস-এনসিপি-শিবসেনা নেতৃত্ব। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘোষণা করা হয়েছিল, জোট সরকারকে নেতৃত্ব দেবেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। সেই সিদ্ধান্ত বহাল রেখেই আগামী বুধবার মুখ্যমন্ত্রীপদে শপথ নিচ্ছেন উদ্ধব। অন্য দিকে উপ-মুখ্যমন্ত্রীপদে থাকছেন দু’জন।

শুক্রবার মুম্বইয়ে জওহরলাল নেহরু সেন্টারের বৈঠকে জোট সরকারের উপ-মুখ্যমন্ত্রীপদের প্রস্তাব দেওয়া হয় অজিতকে। কিন্তু রাতের অন্ধকারে তিনি বিজেপির সঙ্গে গোপন যোগসাজশ করে উপ-মুখ্যমন্ত্রীপদে শপথ নিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। সেই সুযোগটাও হাতছাড়া হল তাঁর।

[ আরও পড়ুন: ইস্তফা দিলেন অজিত পওয়ার ]

জানা গিয়েছে, কংগ্রেসের পক্ষে উপ-মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন বালাসাহেব থোরোট এবং এনসিপির জয়ন্ত পাতিল।

হায় রে কপাল!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.