Rahul Gandhi and Akhilesh Yadav and Mayawati

ওয়েবডেস্ক: আগামী ১১ ডিসেম্বর পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হয়ে গেলেই আগামী লোকসভা নির্বাচনের আসন সমঝোতার বৈঠকে বসতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের বিজেপি-বিরোধী দুই শক্তিশালী দল বহুজন সমাজ পার্টি (বিএসপি) এবং সমাজবাদী পার্টি (এসপি)। মায়াবতীর এসপির এক উচ্চপদস্থ নেতা জানান, আগামী ভোটে ‘বহেনজি’ বিজেপি অথবা কংগ্রেস কোনো দলের সঙ্গেই যেতে নারাজ। একই ভাবে কংগ্রেসের আগ্রাসী মনোভাবের যুক্তি দেখিয়ে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করতে চাইছেন এসপি নেতা অখিলেশ যাদব।

পাঁচ রাজ্যে কংগ্রেস বনাম বিজেপি লড়াই দেখে অখিলেশ মন্তব্য করেন, চলতি পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটে আমাদের দলকে শেষ করে দেওয়া খেলা খেলছে কংগ্রেস। যদি এ ভাবে চলে তা হলে লোকসভা ভোটে ওদের সঙ্গে জোটে যাওয়া যাবে কি না, তা ভেবে দেখার বিষয়।

ফলে এক দিকে মায়াবতীর কংগ্রেস এবং বিজেপির থেকে সমান দূরত্ব বজায় রাখার সিদ্ধান্ত অন্য দিকে সেই কংগ্রেসের বিরুদ্ধেই অখিলেশের তীব্র সমালোচনা আগামী লোকসভা ভোটের আগে প্রচারে আসে বিজেপি-বিরোধী মহাজোটের পরিকল্পনাকে ক্রমশ ফিকে করে দিচ্ছে।

গত শনিবারই মায়াবতী দাবি করেন, “ছত্তীসগঢ়ে বিএসপি-জেসিসি জোট একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করবে”। এর পরই দলের এক নেতা বলেন, “বহেনজি স্পষ্ট করেই বলে দিয়েছেন, কংগ্রেস-বিজেপি কোনো দলের সঙ্গেই আগামী লোকসভা ভোটে আমাদের দলের সম্পর্ক থাকবে না”।


আরও পড়ুন: লোকসভায় কত আসন পেতে পারে বিজেপি? সমীক্ষার ফল প্রকাশ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী


একই সঙ্গে তিনি বলেন, “খুব শীঘ্রই দুই দলের মধ্যে একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হবে। তা সম্ভবত আগামী ১১ ডিসেম্বর পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পরেই আয়োজিত হবে। সেখানে দুই দলের মধ্যে আসন বণ্টনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here