লখনউ: ফের নতুন মোড় লখনউ-এর যাদব কুলের মহাভারতে। শুক্রবার সন্ধ্যায় ‘দলকে রক্ষা করা’র জন্য উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ও বড় ছেলে অখিলেশ যাদবকে ৬ বছরের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করেছিলেন সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো মুলায়ম সিং। বহিষ্কার করেছিলেন তাঁর তুতো-ভাই রামগোপাল যাদবকেও। যিনি, মুলায়মের কথায়, ‘অখিলেশের ভবিষ্যৎ নষ্ট’ করছেন। উত্তর প্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রীর নামও তিনি ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু ২৪ ঘণ্টাও পেরোলো না। দলের রাজ্য সভাপতি শিবপাল যাদব ঘোষণা করে দিলেন, মুলায়মের নির্দেশ অনুসারে অখিলেশ ও রামগোপালকে দলে ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

আসন্ন বিধানসভা ভোটের জন্য দলের প্রার্থী তালিকা নতুন করে তৈরি হবে বলে জানিয়েছেন শিবপাল। দুমাস ধরে চলা বাবা-ছেলের দ্বন্দ্ব এই সপ্তাহে তীব্র আকার নেয় প্রার্থী তালিকা ঘিরেই। মুলায়ম-শিবপালের তৈরি তালিকা মানতে চাননি মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ। তিনি পাল্টা তালিকা প্রকাশ করেন। তারপরই তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেন মুলায়ম। 

সকালে দুপক্ষই দলীয় বিধায়কদের বৈঠক ডেকেছিলেন নিজের নিজের বাড়িতে। অখিলেশ শিবিরের দাবি, অখিলেশের ডাকা বৈঠকে হাজির ছিলেন দলের ২২৪ জন বিধায়কের মধ্যে ২০৭ জন। অন্য দিকে মুলায়মের ডাকা বৈঠকে হাজির হন বাকি বিধায়ক ও এবারের নির্বাচনের প্রার্থী তালিকায় থাকা ৬০ জন। অখিলেশ বৈঠকে বলেন, তিনি উত্তর প্রদেশের নির্বাচনে জিতে তা বাবাকে উপহার দিতে চান। দুই বৈঠকের পরই বোঝা যায়, পাল্লা অনেকটাই ভারী অখিলেশের দিকে। তারপরই উত্তর প্রদেশের মন্ত্রী ও সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খানের উদ্যোগে মুলায়মের বাড়িতে বৈঠক হয় অখিলেশ-মুলায়মের। তারপরই অখিলেশকে দলে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নেন মুলায়ম। অখিলেশের পক্ষ থেকে, অমর সিং-কে দল থেকে তাড়ানোর দাবি জানানো হয় ওই বৈঠকে।   

 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here