মদ্যপানে বাধা দেওয়ায় মেয়েকে গুলি করে মারল বাবা!

0
Murder
নববিবাহিত দম্পতিকে কুপিয়ে খুন। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: বাবাকে মদ্যপানে বাধা দিয়েছিল ১৭ বছরের মেয়ে। রেগে গিয়ে নিজের মেয়েকেই গুলি করে খুন ফেলল মদ্যপ বাবা। পুলিশ ঘাতককে গ্রেফতার করলে, নিজের মেয়েকেই খুনের কথা স্বীকার করে নেয় সে।

গত শনিবার মধ্যরাতে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের সম্ভল জেলার ভান্ডারাই গ্রামে। ঘটনায় প্রকাশ, ৫২ বছরের নেম সিং নিজের মেয়ে নীতেশকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে। ঘটনাস্থলে লুটিয়ে পড়ে নীতেশ। সঙ্গে সঙ্গে নীতেশকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা নীতেশকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তার মৃতদেহ পাঠানো হয় ময়নাতদন্তে।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, নেম সিংহের স্ত্রী বছর পনেরো আগে আত্মহত্যা করেন। স্ত্রীর মৃত্যুর পর মদ্যপান বেড়ে যায় তার। তার বড়ো ছেলে গৌরব বাবার মদ্যপানের প্রতিবাদ করে। দাদার সঙ্গে নীতেশও বাবাকে মদ ছাড়ার অনুরোধ করে।

মদ্যপান নিয়ে অশান্তির জেরে গৌরব দিল্লি চলে যায়। ছোটো ছেলে সৌরভ এবং নীতেশকে নিয়ে বিশাল কৃষিজমির মালিক নেম গ্রামেই থাকত। গত শনিবার রাতে মদ খেতে বসে নেম। তখনই তাকে বাধা দেওয়ার মেয়ের সঙ্গে বচসার সূত্রপাত। এর পর পকেট থেকে একটি দেশি পিস্তল বের করে মেয়েকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় সে।

[ আরও পড়ুন: কাটারি দিয়ে মায়ের দু’হাত কেটে পুলিশে খবর দিতে বলল ছেলে ]

এসএইচও প্রবীণকুমার সোলঙ্কি জানিয়েছেন, নেম সিং যখন তার মেয়েকে গুলি করেছিল, “তখন সৌরভ বাড়িতে ছিল না। আমরা অপরাধীকে গ্রেফতার করেছি এবং সে তার অপরাধ স্বীকার করেছে। আমরা অপরাধে ব্যবহৃত একটি দেশি পিস্তলও উদ্ধার করেছি”।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন