আসছেন না কার্যত কোনো তারকাই, উদ্ধবের শপথগ্রহণের জাঁকজমক ফিকে

সাংবাদিক বৈঠকে পওয়ার-ঠাকরে

মুম্বই: আমন্ত্রিতদের তালিকা বেশ বড়োই ছিল। সনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অরবিন্দ কেজরিওয়াল। কিন্তু বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে উদ্ধব ঠাকরে শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানে কোনো তারকাই থাকতে পারছেন না। ফলে শপথের জাঁকজমক কিছুটা ফিকে হয়ে গিয়েছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এই শপথানুষ্ঠানে মমতাকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও, পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচির কারণে তিনি ওই আমন্ত্রণ রক্ষা করতে পারছেন না। তবে, নিজে উপস্থিত থাকতে না-পারলেও, একজন প্রতিনিধি পাঠাবেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

অন্যদিকে ব্যক্তিগত কারণে কাজে ব্যস্ত থাকায় এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারছেন না অরবিন্দ্র কেজরিওয়ালও। ঠিক যেমন ভাবেই এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হবেন না সনিয়া-রাহুল।

বুধবার রাতে সনিয়া গান্ধীর বাসভবনে গিয়ে তাঁকে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানিয়ে আসেন শিবসেনা বিধায়ক আদিত্য ঠাকরে। কিন্তু সনিয়া জানিয়ে দিয়েছেন তিনি থাকবেন না।

আরও পড়ুন উপনির্বাচনের ফলাফল আপডেট: শুরু হল ভোটগণনা

আবার রাহুল গান্ধীও আসছেন না। সূত্রের খবর, প্রথম থেকেই এই জোটের ব্যাপারে অসম্ভব অনীহা ছিল রাহুলের। যদিও, গত সোমবার মহারাষ্ট্রে বিজেপির সরকার গঠনে বিরুদ্ধে সংসদে সব থেকে প্রথমেই বক্তব্য রাখেন রাহুল।

তবে বিশেষজ্ঞ মহলের ধারনা, কর্নাটকের মতো পরিস্থিতি এড়াতেই খুব সাবধানী পা ফেলছেন আমন্ত্রিতরা। গত বছর মে’তে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে এইচডি কুমারস্বামীর শপথগ্রহণে তারকা ছড়াছড়ি হয়েছিল। পুরো বিরোধী শক্তিকে হাজির করিয়ে দিয়েছিল এই অনুষ্ঠান। কিন্তু এক বছর কাটতে না কাটতেই সেই সরকার ভেঙে পড়ে।

অনেকেরই ধারনা, মহারাষ্ট্রের সরকার বেশিদিন টিকবে না। মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগেই তা ভেঙে যাবে। সেই কারণেই এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান এড়িয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

অন্যদিকে, এ দিন সকাল থেকেই মুম্বইয়ে প্রস্তুতি তুঙ্গে। এনসিপি-কংগ্রেসের সঙ্গে সক্ষতা কতটা, সেটা বোঝাতে বিশেষ পোস্টার দিয়েছে শিবসেনা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.