দাদরি-কাণ্ডে নিহত মহম্মদ আখলাকের ভাই ছাড়া পরিবারের অন্য সকলের গ্রেফতারিতে স্থগিতাদেশ দিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। এঁদের সকলের বিরুদ্ধে গো-হত্যার অভিযোগে এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল।   

ওই এফআইআরের বিরুদ্ধে আখলাখের পরিবারের তরফ থেকে দায়ের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার, এলাহাবাদ হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ রায় দেয় যে শুধুমাত্র আখলাকের ভাই জান মহম্মদ ছাড়া আর কাউকে গ্রেফতার করতে পারবে না উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। প্রসঙ্গত, আখলাখের বাড়িতে গোমাংসই ছিল এই অভিযোগে আখলাখের স্ত্রী ইক্রামান আর মা আসগারি-সহ পরিবারের সাত জনের বিরুদ্ধে উত্তরপ্রদেশ পুলিশকে এফআইআর করার নির্দেশ দেন বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট বিজয় কুমার।      

উল্লেখ্য, বাড়িতে গোমাংস আছে, এই গুজব ছড়িয়ে পড়ার পর গত সেপ্টেম্বরে দাদরির বিসাডা গ্রামের মানুষজন ৫০ বছর বয়সি মহম্মদ আখলাককে বাড়ি থেকে টেনে নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলে। ছেলে দানিশকেও মারাত্মক ভাবে জখম করা হয়। কিন্তু প্রথমে করা ফরেন্সিক তদন্তে গোমাংসের কথা বলা না হলেও এ বছরই মে মাসে করা আরেকটি ফরেন্সিক তদন্তে জানা যায় আখলাখের বাড়িতে নাকি গোমাংসই ছিল।  

এর পরই বিসাডা গ্রামের অধিবাসীরা গৌতম বুদ্ধ নগরের এসএসপি-র সঙ্গে দেখা করে গোহত্যার অপরাধে আখলাকের পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর নথিভুক্ত করার দাবি জানান। তার পর ওই গ্রামেরই সুরজপাল সিং একই আবেদন নিয়ে বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের দ্বারস্থ হন। সেই আবেদনের ভিত্তিতে বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট বিজয় কুমার বৃহস্পতিবার আখলাকের পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর করার নির্দেশ দেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here