bjp mla

ওয়েবডেস্ক: ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ককে আটক নয়, আগে গ্রেফতার করতে হবে। শুক্রবার সিবিআইকে এমনই কড়া নির্দেশ দিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে তারা জানিয়ে দিয়েছে যে গোটা ঘটনার ওপরে নজর রাখবে তারা। ২ মে’র মধ্যে এই সংক্রান্ত রিপোর্টও চেয়ে পাঠিয়েছে হাইকোর্ট।

এ দিকে শুক্রবার ভোর চারটেয় লখনউয়ে একটি বাড়ি থেকে কুলদীপকে আটক করে সিবিআই। এর পাশাপাশি রাজ্য পুলিশের বিশেষ তদন্তকারী দলের কাছে সিবিআই আবেদন করেছে তারা যেন এই সংক্রান্ত সমস্ত নথি তাদের দিয়ে দেয়। কুলদীপকে যে গ্রেফতার করা হতে পারে সে খবর নিশ্চিত করেছেন সিবিআইয়ের আইজি জিকে গোস্বামী।

এ দিকে কুলদীপের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নির্যাতিতা ওই তরুণী। শুক্রবার এএনআইকে তিনি বলেন, “আমি চাই ওই বিধায়ক যেন কঠোর শাস্তি পান।”

এ ছাড়াও ইতিমধ্যে উন্নাওয়ে ওই তরুণীর পরিবারের সঙ্গে কথাবার্তা চালাচ্ছে সিবিআইয়ের একটি দল। পাশাপাশি স্থানীয় পুলিশকর্মী এবং যে হাসপাতালে ওই তরুণীর বাবা ভর্তি ছিলেন তার চিকিৎসকদের বয়ানও রেকর্ড করা হবে। ইতিমধ্যেই ওই হাসপাতালের দুই চিকিৎসককে সাসপেন্ড করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন