নতুন ভাইরাস স্ট্রেনের আতঙ্কের মধ্যেই ব্রিটেন থেকে ভারতে ফেরা একাধিক ব্যক্তি কোভিড-১৯ আক্রান্ত!

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: নতুন ভাইরাস স্ট্রেনের আতঙ্কের মধ্যেই ব্রিটেন থেকে ভারতে ফেরা একাধিক ব্যক্তি কোভিড-১৯ (Covid-19) পজিটিভ হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

জানা গিয়েছে, ব্রিটেন থেকে দিল্লি হয়ে চেন্নাই ফেরত এক ভারতীয়ের শরীরে পাওয়া গিয়েছে করোনাভাইরাস (Coronavirus)। আবার কলকাতায় দুই লন্ডন ফেরত যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাসের হদিশ মিলেছে। তবে আশঙ্কা এখন একটাই, আক্রান্তদের শরীরে করোনার নতুন স্ট্রেন (new virus strain) রয়েছে কি না!

সূত্রের খবর, কলকাতায় যে দু’জন ব্রিটেন ফেরত ব্যক্তি করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন, তাঁদের লালারসের রিপোর্ট পুণেতে পাঠানো হয়েছে। এঁদের একজন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন এবং অন্যজন ভরতি রয়েছেন রাজারহাট সিএমসিআই-এ। পাশাপাশি চেন্নাইয়ের ব্যক্তির নমুনাও পরীক্ষার জন্য পুণেতে পাঠানো হয়েছে। তাঁকে কিংস ইনস্টিটিউটে ভরতি করা হয়েছে। বিমানে আসা বাকি যাত্রীদেরও পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে।

নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষা করতে মিউটেশন করে ভাইরাস। বর্তমানে পৃথিবীতে হাজার খানেক ‘করোনা-স্ট্রেন’ রয়েছে। তবে ব্রিটেনে যে নতুন স্ট্রেনটির হদিশ পাওয়া গিয়েছে, সেটা আগের তুলনায় অতি দ্রুত সংক্রমণ ঘটাতে পারে বলে সরকারি ভাবে দাবি করা হয়েছে।

সম্প্রতি করোনার নতুন একটি স্ট্রেন আতঙ্ক জাগিয়েছে ব্রিটেনে। সংক্রমণ লাগামছাড়া পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে ব্রিটেনে। পরিস্থিতি যে নিয়ন্ত্রণের বাইরে তা স্বীকার করে নিয়েছে সে দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রকও। পরিস্থিতি সামাল দিতে রবিবার থেকে দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ড এবং লন্ডনে নতুন করে শুরু হয়েছে লকডাউন। তা নিয়ে এ বার ভাবনায় ভারতও। ইতিমধ্যে ব্রিটেন থেকে আগত সমস্ত বিমান বাতিল করে দিয়েছে ভারত।

প্রসঙ্গত, ব্রিটেনের মতোই ভাইরাসের নতুন স্ট্রেনটি পাওয়া গিয়েছে ইতালিতেও। এই নতুন ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে মহারাষ্ট্রে নতুন করে জারি হয়েছে নাইট কারফিউ। রাত ১১টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত নাইট কারফিউ জারি করেছে মহারাষ্ট্র সরকার।

আরও পড়তে পারেন: ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্রিটেন থেকে আসা উড়ানের ওপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করল ভারত

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন