amit-shah

ওয়েবডস্ক: মায়াবতী-অখিলেশ যাদবের বিরুদ্ধে মধুর ‘প্রতিশোধ’ নিয়ে ফেললেন অমিত শাহ। সময় লাগল মাত্র ২৪ ঘণ্টা।

উত্তরপ্রদেশের লোকসভা উপনির্বাচনে ২৫ বছরের তিক্ত সম্পর্কের কথা শিকেয় তুলে এক জোট হয়েছিল বহুজন সমাজ পার্টি এবং সমাজবাদী পার্টি। শর্তসাপেক্ষ জোটের ভিত্তিতে নির্বাচনে লড়ে অখিলেশ-মায়াবতী জুটি দু’টি লোকসভা কেন্দ্রেই পরাস্ত করে বিজেপিকে। স্থির হয়, আসন্ন রাজ্যসভা প্রতিনিধি নির্বাচনে মায়াবতীর বিধায়ক ঘাটতি পূরণ করবেন অখিলেশ। কিন্তু শেষ রক্ষা আর হল না বললেই চলে। গত ২৪ ঘণ্টা উত্তরপ্রদেশে পড়ে থেকে সেই অঙ্ক গড়বড় করে দিলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ।

আগামী শুক্রবার অনুষ্ঠিত হতে চলেছে রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচন। উত্তরপ্রদেশ থেকে ওই দিন নির্বাচিত হবেন ১০ জন সাংসদ। এর মধ্যে অঙ্কের হিসাবে বিজেপি পেতে পারে আটটি। সমাজবাদী ও বহুজন সমাজ পার্টি একটি করে আসন দখল করতে পারে সমঝোতার ভিত্তিতে।

উত্তরপ্রদেশে রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচিত হতে প্রতি প্রার্থীকে পেতে হবে ৩৭ জন বিধায়কের সমর্থন। বর্তমানে বিজেপির হাতে রয়েছে ৩১১ জন, সমাজবাদী পার্টির ৪৭ জন এবং বহুজন সমাজ পার্টির মাত্র ১৯ জন। স্বাভাবিক ভাবে আটটি আসনে জয় নিশ্চিত করে নয় নম্বর আসনটির জন্য বিজেপিকে নির্ভর করতে হবে অন্য কোনো দলের উপর। অন্য দিকে সমাজবাদী পার্টি এক জন সাংসদকে জিতিয়ে নিয়ে আসার পর বাকি ১০ জনকে পাঠিয়ে দেবে মায়াবতীর কাছে, অন্তত এমনটাই ছিল শর্ত। কিন্তু বুধবার এই বিষয়ে অখিলেশের ডাকা বিশেষ বৈঠকে গরহাজির সাত বিধায়ক।

সূত্রের খবর, অখিলেশ যাদব ওই বিধায়কদের গরহাজিরা নিয়ে যাই বলুন না কেন, অমিত শাহ যে তাঁদের ‘ম্যানেজ’ করে নিয়েছেন তা প্রায় নিশ্চিত। তা হলে তিনি কী জবাব দেবেন মায়াবতীকে? ঠিক এমন শর্তেই তো মায়াবতী লোকসভা উপনির্বাচনে সমর্থন দিয়েছিলেন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন