নয়াদিল্লি: স্বপ্ন দেখত ডাক্তার হবে, আত্মীয়স্বজনরাও তাকে ডাকতে শুরু করে দিয়েছিলেন ডাক্তার অনিতা বলে। আর ডাকবেন নাই বা কেন? দ্বাদশ শ্রেণিতে অমন ভালো ফল যার। বোর্ডের পরীক্ষায় ১২০০ নম্বরের মধ্যে ১১৭৬ পেয়েছিল সে। অঙ্ক, পদার্থবিজ্ঞানে পুরো নম্বর। তাই আশায় বুক বেঁধেছিলেন অনিতার বাবা-মা এবং আত্মীয়স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশীরা। কিন্তু সর্বভারতীয় প্রবেশিকা পরীক্ষায় (নিট) ব্যর্থ হয় সে।

শুক্রবার দলিত ছাত্রী ১৭ বছরের অনিতার দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় তার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়। প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় আত্মহত্যা করেছে অনিতা। নিট বাতিলের দাবি জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলাও করেছিলেন অনিতা। আদালত তার দাবি মানেনি।

তার আত্মহত্যার খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই বিক্ষোভ শুরু হয়ে যায় তামিলনাড়ু জুড়ে। দুঃখপ্রকাশ করেন তামিল সুপারস্টার রজনীকান্ত এবং কমল হাসন। শনিবার সকাল থেকেই বিক্ষোভ দেখাতে থাকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এবং ছাত্র সংগঠনগুলি। ত্রিচিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্‌ধের ডাক দেয় কয়েকটি ছাত্র সংগঠন। রাস্তা অবরোধ করে সিপিএমের ছাত্র ও যুব সংগঠন এসএফআই এবং ডিওয়াইএফআই। অবরোধ তুলতে গেলে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয় বিক্ষোভকারীদের। বিক্ষোভকারীরা রাজ্য থেক নিট বাতিলের দাবি তোলেন।

মামলাতে শীর্ষ আদালতে কী জানিয়েছিলেন অনিতা?

অনিতার বাবা দিনমজুর। তবু মেধার জোরে ছোটো থেকেই স্কুল ভালো ফল করত সে। আদালতকে অনিতা জানায়, তার মতো দরিদ্র ছাত্রীর পক্ষে প্রচুর টাকা খরচ করে কোচিং করা সম্ভব নয়। আর এই ধরনের কোচিং-এ পড়া ছাড়া নিট বা জয়েন্ট এন্ট্রান্সে সুযোগ পাওয়া অসম্ভব । কারণ বোর্ডের স্কুল পড়া ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে নিটের প্রশ্ন বেশ কঠিন।

একটি বেসরকারি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অনিতা জানিয়েছিল, ‘‘আদালতকে জানিয়েছিলাম, আমি ভেবেছিলাম বোর্ডের পরীক্ষার থেকে নিটের পরীক্ষা খুব একটা আলাদা হবে না। কিন্তু পরীক্ষা দিতে গিয়ে দেখলাম বেশ কঠিন, তাই আমি ভালো ফল করতে পারিনি।’’

শীর্ষ আদালত ২২ আগস্ট নির্দেশ দেয় তমিলনাডু এ বছর নিট থেকে ছাড় পাবে না। ফলে নিটের ফল অনুযায়ী ভর্তিও শুরু হয়ে যায়। স্বপ্নভঙ্গ হয় অনিতার।

তামিলনাডুর একটি টিভি চ্যানেলকে হতাশ অনিতা বলেছিল, ‘‘আমি হতাশ, ভাবছি কৃষি নিয়ে পড়ব, কৃষকদের জন্য কাজ করব।’’

তামিল অভিনেতা প্রথিবন তাঁর ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘‘এটা আত্মহত্যা নয়, হত্যা’’।

এ বছর জানুয়ারিতে জাল্লিকাট্টু বন্ধের প্রতিবাদ যে বিক্ষোভের আঁচ দেখেছিল মেরিনা বিচ, অনিতার মৃত্যুতে প্রতিবাদের আঁচে তারই সিঁদুরে মেঘ দেখছে তামিলনাড়ু।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন