anna

ওয়েবডেস্ক: গুজরাত নির্বাচনকে উপলক্ষ করে মুখলেন সমাজকর্মী আন্না হাজারে। ঘোষণা করলেন তাঁর আগামী কর্মসূচিও।

কংগ্রেস বা বিজেপি দুর্নীতি-বিরোধী আন্দোলনকে দুর্বল করে তুলতে সদা সচেষ্ট রয়েছে, এমন অভিযোগকে সামনে রেখে তিনি গুজরাত নির্বাচনে এই দুই দলকে ভোট না দেওয়ার আর্জি জানালেন সাধারণ মানুষের কাছে। বিঁধতে ছাড়েননি তাঁরই ভাবশিষ্য অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টিকেও। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, আগামী ২৩ মার্চ শহিদ দিবসের দিন থেকে তিনি জন লোকপাল বিলের সঠিক প্রয়োগের দাবিতে সত্যাগ্রহে নামবেন। সেখানে অবশ্য কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রী বা কর্মীকে মঞ্চ ভাগ করে নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে না। আরও স্পষ্ট করে দিয়ে তিনি বলেছেন, দেশের রাজনীতির পীঠস্থান নয়াদিল্লিতেই হবে এই সত্যাগ্রহ অবস্থান। উল্লেখ্য, ২৩ মার্চ ভগৎ সিং-এর ফাঁসির দিন শহিদ দিবস পালন করা শুরু করে বিজেপি।

গত ২২ বছরে ১২ লক্ষ কৃষক আত্মহত্যা করেছেন। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর দাবি, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন পূর্বতন ইউপিএ সরকার দেশের চাষিদের মানোন্নয়নে যেমন উদাসীন ছিল, বর্তমানে বিজেপির নেতৃত্বে এনডিএ সরকারও একই পথ অবলম্বন করে চলেছে। গত তিন বছর ধরে এই সরকার চাষিদের উদ্দেশে যে সব প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, তার কোনোটারই বাস্তবায়ন হয়নি। এই সরকার শিল্পপতিদের জন্য যতটা বেশি ভাবে ততটাই কম ভাবে চাষিদের কথা। হাজারে বলেন, “সাধারণ মানুষের চাপের কাছে নতি স্বীকার করে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ জন লোকপাল বিল পাশ করাতে বাধ্য হয়েছিলেন। রামলীলা ময়দানে ধরনা চলাকালীন মনমোহন লিখিত ভাবে আমাকে লোকপাল এবং লোকায়ুক্ত পাশের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তার পরই সেই ধরনা তুলে নেওয়া হয়। কিন্তু সংসদে যে বিল পাশ হয়েছে তা বহুলাংশে দুর্বল এবং তাঁর বাস্তবায়নেও মনোযোগ দেখা যায়নি। সে কারণেই ফের ধরনায় বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

ভোট-রাজনীতি দেশকে শেষ করে দিচ্ছে, এমন কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, “কংগ্রেস মানুষকে ধোঁকা দিয়েছে। বিজেপি-ও ভোটের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পিছনে ফেলে দিয়েছে। নরেন্দ্র মোদীর সরকার ক্ষমতায় আসার পর আমরা ভেবেছিলাম এ বার বোধহয় লোকপাল এবং লোকায়ুক্ত বাস্তবায়িত হবে। কিন্তু কোথায় কী। আমাদের দাবিদাওয়াগুলোর উপর নির্মম ভাবে কাঁচি চালানো হয়েছে। দুর্নীতির বিরোধিতা দূরে সরে গিয়ে এখন দুর্নীতির পালন করা হচ্ছে।‘

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here