টুইটারের বাইশ গজে মোদীকে হারালেন বিরাট

0

দিল্লি: ডিজিটাল ভারত গড়তে চায় নরেন্দ্র মোদীর সরকার। বিমুদ্রাকরণ, ক্যাশলেস অর্থনীতির পথে হাঁটা তো রয়েছেই। কিন্তু এ সবের বহু আগে থেকেই ফেসবুক আর টুইটারকে নিজের প্রচারের কাজে লাগিয়েছেন মোদী। সরকারি সিদ্ধান্ত ঘোষণা, সরকারের সাফল্য ঘোষণায় সোশাল মিডিয়ার ব্যবহারকে নিয়ে গিয়েছেন চূড়ান্ত পর্যায়। শুধু তিনি নন, সোশাল মিডিয়ার ব্যবহারে পটু তাঁর ভক্ত-সমর্থকরাও। সপ্তাহের শুরুতেই টাইম ম্যাগাজিনের অনলাইন পাঠক ভোটে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা নির্বাচিত হয়েছেন মোদী। 

কিন্তু এত সত্ত্বেও ভারতের ডিজিটাল দুনিয়ায় তিনি জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছতে পারলেন না। ক্রিকেটপ্রিয় ভারতবাসীর হাতের জাদুতে ভারতের ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলি ছক্কা হাঁকালেন মোদীর ডেলিভারিতে। 

টুইটার ইন্ডিয়া তাদের বার্ষিক রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। টুইটারের মতে এ বছরের সব থেকে জনপ্রিয় টুইট হল বিরাট কোহলির টুইট। তাঁর খারাপ খেলার জন্য টুইটে যখন অনুষ্কা শর্মাকে দায়ী করা হচ্ছিল, তখন তিনি অনুষ্কার হয়ে টুইট করেন। তাঁর সেই টুইটটি ‘গোল্ডেন টুইট’ হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। এই টুইটের পর ৩৯ হাজার রিটুইট আসে। ক্রিকেট অধিনায়কের এই টুইট পোস্ট যে শুধু টুইটারেই ভাইরাল হয়েছে তাই নয়, এর স্ক্রিনশট ফেসবুক পোস্টেও দারুণ জনপ্রিয় হয়েছে। শুধু টুইটারেই এটি ১ লাখ ৭ হাজার লাইক পেয়েছে।

 

প্রথম বিরাট, দ্বিতীয়তে মোদী। ‘নোটবন্দী’ – ৫০০ ও  ১০০০ নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে নরেন্দ্র মোদীর টুইটই রয়েছে তালিকার দ্বিতীয়তে।

টুইটারে জনপ্রিয় মুহূর্তের তালিকায় রয়েছে নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ও রিও-তে তিন কন্যা সিন্ধু-সাক্ষী-দীপার কৃতিত্ব নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর টুইট। টুইটারে জনপ্রিয় মুহূর্তের এই তালিকায় তৃতীয়তে ফের রয়েছেন বিরাট। ইডেন গার্ডেনে ভারত-পাকিস্তানের ব্যাটের লড়াই – এই মুহূর্তটি টুইটে তৃতীয় জনপ্রিয় মুহূর্ত হিসেবে বিবেচিত হয়। এই তালিকার ছ’ নম্বরে ফের রয়েছেন বিরাট।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here