ঘণ্টায় ছ’শো কিলোমিটার গতিতে ছুটবে ট্রেন? অ্যাপেলের সঙ্গে কথাবার্তা ভারতীয় রেলের

নয়াদিল্লি: অদূর ভবিষ্যতে ঘণ্টায় ছ’শো কিলোমিটার গতিতে ছুটতে পারে ট্রেন। বিশ্ববিখ্যাত প্রযুক্তি সংস্থা অ্যাপেলের সাহায্য নিয়ে এই কৃতিত্ব অর্জন করতে পারে ভারতীয় রেল। এই পদক্ষেপ সফল হলে বিশ্বের সব থেকে দ্রুততম ট্রেনের শিরোপা উঠবে গতিমান এক্সপ্রেসের মাথায়।

আইফোনের জন্য বিখ্যাত হয়েছে প্রযুক্তি সংস্থা অ্যাপেল। কিছু দিনের মধ্যেই বাজারে আইফোন ৮ আনতে চলেছে তারা। সেই সংস্থার সাহায্য নিয়েই ভারতীয় রেলকে নতুন পথে নিয়ে যাওয়ার কথা, শিল্পগোষ্ঠী আসোচ্যামের সভায় বলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু। প্রকল্পটির জন্য প্রস্তাবিত খরচ হবে ১৮,০০০ কোটি টাকা। সেই টাকার অনুমোদন করার ব্যাপারে রেলমন্ত্রককে সম্মতি দিয়েছে নীতি আয়োগও।

রেলমন্ত্রীর কথায়, এখন দেশের সব থেকে ব্যস্ত এবং লাভজনক রুট হল দিল্লি-মুম্বই এবং দিল্লি-কলকাতা। এই দু’টি রুটে আরও গতিমান এক্সপ্রেস চালানোর কথা বলেন তিনি। বর্তমানে দেশের একমাত্র গতিমান এক্সপ্রেসটি চলে দিল্লি এবং আগ্রার মধ্যে।

প্রাথমিক ভাবে ট্রেনের গতিকে ঘণ্টায় দুশো কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ানোর ব্যাপারে চিন্তাভাবনা চলছে। সুরেশ প্রভুর কথায়, “আপনারা বুঝতেই পারছেন, এর ফলে কতটা সময় বাঁচানো যাবে।” দুশো কিলোমিটার গতি ছুঁতে পারলে  ‘হাই স্পিড রেল’-এর (এইচএসআর) তকমা পাবে গতিমান।

তবে বিশ্বের দ্রুততম ট্রেনের সঙ্গে তুলনা করলে দুশো কিলোমিটার গতিধারী ট্রেন এখনও শিশু। কারণ বর্তমানে দ্রুততম বাণিজ্যিক ট্রেনটি হল সাংহাই মাগ্লেব ট্রেন। ট্রেনটির গড় গতি ঘণ্টায় ৪৩১ কিলোমিটার। অন্য দিকে ২০১৫ সালে একটি পরীক্ষামূলক দৌড়ে জাপানের মাগ্লেব ট্রেন ঘণ্টায় ৬০৩ কিলোমিটারের গতি ছুঁয়েছিল। এখনও পর্যন্ত এটিই রেকর্ড।

 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.