ডিএস হুডা

ওয়েবডেস্ক: পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে প্রচারের হাতিয়ার হিসেবে বারবার সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের প্রসঙ্গ তোলে রাজনৈতিক দলগুলি। তবে বিজেপির তরফ থেকে ব্যাপারটা নিয়ে একটু বেশিই প্রচার করা হয়। বিজেপি সরকারের অন্যতম সাফল্য হিসেবে এই স্ট্রাইককে তুলে ধরা হচ্ছিল। এই ব্যাপারটা নিয়ে প্রচণ্ড আপত্তি তুললেন প্রাক্তন এক সেনা অফিসার। এর মধ্যে দিয়ে তিনি ঘুরিয়ে বিজেপিকেই বার্তা দিলেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

২০১৬-এর সেপ্টেম্বরে যখন সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে ভারতীয় সেনা, তখন নর্দার্ন কমান্ডের প্রধান ছিলেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডিএস হুডা। তিনি নিজের এই স্ট্রাইকের ওপরে নজর রেখেছিলেন। লেঃ জেনারেল হুডা এখন অবসরপ্রাপ্ত। সেই অবসরপ্রাপ্ত অফিসারই মনে করেন এই মুহূর্তে বড্ড বেশি বাড়াবাড়ি করা হচ্ছে সার্জিক্যাল স্ট্রাইককে ঘিরে।

তিনি মনে করেন, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ঘটানোর প্রথম কয়েকটা মাসে এটা নিয়ে উচ্ছ্বাস থাকারই কথা। কিন্তু এখন সেটা বন্ধ হওয়া উচিত। তাঁর কথায়, “আমি মনে করি এটাকে নিয়ে বড্ড বেশি রঙ চড়ানো হচ্ছে। সেনা অভিযান দরকার হয়ে পড়েছিল, তাই আমরা করেছি। সেটা এ রকম ভাবে তুলে ধরা উচিত কি না, সেটা নিয়ে রাজনীতিবিদদের ভাবা উচিত।”

উল্লেখ্য, ২০১৬-এর সেপ্টেম্বরে কাশ্মীরের উরিতে সেনা ছাউনিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। সেই জঙ্গিরা পাকিস্তান মদতপুষ্ট, এই দাবি করে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালায় ভারতীয় সেনা। নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে যথেষ্ট প্রাণহানি ঘটানো গিয়েছিল বলে দাবি করে সেনা।

আরও পড়ুন রাজ্যের স্কুলগুলির জন্য সাড়ে চারশোর উপর চিকিৎসক নিয়োগ করছে স্বাস্থ্য দফতর!

উল্লেখ্য, পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি এই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সাফল্যকেই হাতিয়ার করছে বলে দাবি করছে বিরোধীরা। হুডার কথায় সেই দাবিকেই সিলমোহর দেওয়া হল বলে মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here