ওয়েবডেস্ক: উত্তর ও পূর্ব সিকিমে প্রবল তুষারপাতের জেরে আটকে পড়া প্রায় দেড়শো পর্যটককে উদ্ধার করল সেনা। বুধবার রাতে ৫০ জনকে উদ্ধার করে ডোগরাতে সেনা ব্যারাকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। বাকিদের উদ্ধার করে লাচুং-এর হোটেলে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার বিকেল থেকেই প্রবল তুষারপাত শুরু হয় সিকিমে। পূর্বাভাস মতো উত্তর সিকিমের লাচেন, লাচুং, গুরুদংমার এবং পূর্ব সিকিমের ছাঙ্গু, নাথুলা-সহ বিভিন্ন জায়গায় দফায় দফায় বরফ পড়ে। সেনা সূত্রে খবর, বরফে আটকে পড়া পর্যটকদের উদ্ধারে নামেন সেনাবাহিনীর ত্রিশক্তি কোরের শিখ রেজিমেন্টের জওয়ানরা।

প্রবল তুষারপাতের পরে সিকিমের কিছু জায়গায় তাপমাত্রা নেমে যায় হিমাঙ্কের অনেকটাই নীচে। ফলে আটকে পড়া পর্যটকদের মধ্যে অনেকেই শ্বাস-প্রশ্বাস সহ নানান সমস্যায় ভুগতে শুরু করেন। এই সব পর্যটককে উদ্ধার করে খাবার এবং চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন এবার সবরীমালায় প্রবেশ করলেন ৩৬ বছরের দলিত মহিলা?

তুষারপাতের পূর্বাভাস আগে থেকেই ছিল। সেই কারণেই অনেক পর্যটক সেখানে গিয়েছিলেন তুষারপাতের সাক্ষী থাকতে। কিন্তু সেই তুষারপাত যে এ রকম ভয়ংকর রূপ নেবে সেটা আন্দাজ করা যায়নি। এর ফলেই বিপদ আরও বাড়ে।

প্রবল তুষারপাতের ফলে আপাতত বন্ধ রয়েছে লাচুং থেকে ইয়ুমথাংগামী রাস্তা। অন্য দিকে গ্যাংটক থেকে নাথুলাগামী রাস্তাও বন্ধ রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সেই রাস্তা খোলা হবে কি না পরিস্থিতি বিচার করে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সিকিম পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here