প্রমাণ জোগাড় করতে পারেনি উত্তরপ্রদেশ পুলিশ, কেরলের সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা খারিজ করে দিল আদালত

    আরও পড়ুন

    খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত ছয় মাস ধরে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের হাতে বন্দি কেরলের সাংবাদিক সিদ্দিক কাপ্পান (Siddique Kappan)। তাঁর বিরুদ্ধে শান্তিভঙ্গের যে অভিযোগ যোগীরাজ্যের পুলিশ এনেছিল, তা খারিজ করে দিল মথুরার একটি আদালত। এর মূল কারণ, কাপ্পানের বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণই জোগাড় করতে পারেনি পুলিশ।

    উল্লেখ্য, গত বছর ৫ অক্টোবর হাথরসের সেই নির্যাতিতার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে চার সঙ্গী-সহ কাপ্পানকে গ্রেফতার করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। পিএফআই নামক নিষিদ্ধ সংগঠনের সদস্য সন্দেহে মুজফফরনগরের আতিউর রহমান, বাহরাইচের মাসুদ আহমেদ, রামপুরের আলম নামের তিন জনও গ্রেফতার হন।

    Loading videos...

    পুলিশের দাবি ছিল, বাড়ির ঠিকানা-সহ নানা বিষয়ে কাপ্পান মিথ্যা তথ্য দিয়েছিলেন। উত্তরপ্রদেশ সরকারের দাবি, পিএফআই (PFI) এবং তাদের ছাত্র শাখার অন্য কর্মীদের সঙ্গে হাথরস যাচ্ছিলেন কাপ্পান। তাঁদের কাছে আপত্তিকর সামগ্রী ছিল।

    - Advertisement -

    পুলিশ আরও দাবি করে যে ওই এলাকার শান্তিভঙ্গ করাই আসল উদ্দেশ্য ছিল কেরলের ওই সাংবাদিকের। কাপ্পানের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ইউএপিএ (UAPA) ধারায় মামলা করে যোগী সরকার। যার ফলে দীর্ঘদিন জামিনও পাননি কেরলের ওই সাংবাদিক।

    কিন্তু মঙ্গলবার আদালতে সরকারপক্ষের আইনজীবী জানিয়ে দেন, ৬ মাসের সময়সীমা পেরোনোর পরও কাপ্পানের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ করতে পারেনি পুলিশ। ফলে কাপ্পানের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিম্ন আদালত খারিজ করে দেয়।

    মথুরার ওই আদালত জানিয়েছে, কাপ্পানকে যে ধারায় আটক করা হয়েছিল, সেই ধারা অনুযায়ী তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের তদন্ত ছয় মাসের মধ্যে শেষ করতে হত। কিন্তু পুলিশ যে হেতু সেই সময়সীমায় তদন্ত শেষ করতে পারেনি, তাই এই মামলা খারিজ করা হচ্ছে।

    কাপ্পানের বিরুদ্ধে আর কোনো পদক্ষেপ করা যাবে না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছে আদালত। কাপ্পানের গ্রেফতারির পর দেশ জুড়ে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল উত্তরপ্রদেশ সরকারকে। তাঁর নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে একাধিক বার চিঠি লিখেছিলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নও।

    আরও পড়তে পারেন বাম শিবিরে ফের ভাঙন শিলিগুড়িতে, তৃণমূলে যোগ দিলেন দীর্ঘদিনের কাউন্সিলার-সহ অনেকেই

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

    - Advertisement -

    আপডেট খবর