ডিজিপির কনভয়ে পাথর, বিধায়কের বাড়িতে আগুন, কারফিউতেও উত্তাল অসম

0

ওয়েবডেস্ক: বিতর্কিত নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ তীব্র আকার ধারণ করার পরেও বৃহস্পতিবার গুয়াহাটিতে কারফিউ জারি করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও কড়া প্রহরা এড়িয়ে চলছে সহিংস আন্দোলন।

পুলিশ জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীরা পাথর ছুড়ে মারার পরে লালুংগাঁও এলাকায় গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছে। আন্দোলনকারীরা দাবি করেছেন, পুলিশের গুলিতে কমপক্ষে চারজন আহত হয়েছেন। একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, এক বিজেপি বিধায়কের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়।

বিক্ষোভ অব্যাহত থাকায় অসমের চাবুয়ায় বিধায়ক বিনোদ হাজারিকার বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, এ দিন আন্দোলনকারীরা বিজেপি বিধায়কের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেন।

একই সঙ্গে নাগরিকত্ব বিল-বিরোধী বিক্ষোভকারীরা বেশ কয়েকটি গাড়িতেও আগুন ধরিয়ে দেন। একটি সার্কেল অফিসও পুড়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে।

অসম ডিজিপির কনভয়কে লক্ষ্য করে পাথর ছোড়া হয়। গুয়াহাটির জি এস রোডে অসম পুলিশ প্রধান ভাস্কর জ্যোতি মহন্তের কনভয়ের উপর পাথর ছোড়া হয়।

এহেন অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির মাঝেই অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ খুব স্পষ্ট ভাবে বলে দিয়েছেন যে অসমের জনগণের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক এবং সাংবিধানিক সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কেন্দ্র অসম চুক্তির ৬ নম্বর ধারাটি বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর। এই বিষয়টি নিয়েই আমি রাজ্যের মানুষকে আশ্বস্ত করছি”।

[ আরও পড়ুন: দিল্লিতে বিদেশমন্ত্রকের আয়োজিত অনুষ্ঠান থেকে সরে দাঁড়াল বাংলাদেশ ]

প্রশাসন জানিয়েছে, গত বুধবার মোবাইল এবং ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল রাজ্যের ১০টি জেলায়। এ দিনের পরিস্থিতি দেখার পর পরিষেবাগুলি বন্ধ রাখার মেয়াদ আরও ৪৮ ঘণ্টা বাড়ানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.