হরিয়ানায় খুন অধ্যাপক, হায়দরাবাদে ছুরিকাহত দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র

0

ওয়েবডেস্ক: মঙ্গলবার ভারতের দু’টি প্রান্ত রাঙা হল শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকের রক্তে। এক দিকে যখন যে ছাত্রের গুলিতে নিহত হলেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক, তখনই দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্র খুন হল হায়দরাবাদে।

মঙ্গলবার সকালে হরিয়ানার সনেপত জেলার পিপলিতে এক ছাত্রের গুলিতে খুন হন শহিদ দলবীর সিংহ কলেজের সহকারী অধ্যাপক রাজেশ সিংহ। যদিও অভিযুক্ত ব্যক্তিকে নিজেদের ছাত্র বলে এখনও মানতে চায়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ। তবে পুলিশের দাবি, আততায়ী ওই কলেজেরই ছাত্র।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটা থেকে ন’টার মধ্যে ওই আততায়ী ক্লাসরুমে ঢুকে রাজেশকে গুলি করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা জানান, পথেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। আততায়ী মুখোশ পরে এসেছিল বলে জানিয়েছেন ওই কলেজেরই এক অধ্যাপক। তাঁর কথায়, “আততায়ীর আচরণ দেখে তো মনে হচ্ছিল কলেজেরই ছাত্র কিন্তু মুখ ঢাকা থাকায় এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।” তবে গুলি চালানোর সঙ্গে সঙ্গেই সে পালিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন পই আধ্যাপক।

এই ঘটনার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই হায়দরাবাদে ঘটে যায় আরও একটি ঘটনা। দ্বাদশ শ্রেণির এক পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে খুন করে চারজনের একটি দল।

এ দিন দুই বন্ধুকে নিয়ে পরীক্ষা দিতে যাচ্ছিল ই সুধীর নামক এক ছাত্র। রাস্তায় তাকে ঘিরে ধরে মোটরবাইকআরোহী চার আততায়ী। সুধীরকে কোপাতে শুরু করে তারা। বন্ধুরা বাঁচাতে এলে তাদেকেও হুমকি দেওয়া হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এরই মধ্যে একটি স্কুল বাসে চেপে সুধীর পালানোর চেষ্টা করলেও, তাকে টেনে হিঁচড়ে বের করে ফের কোপাতে শুরু করে আততায়ীরা। কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যু হয় সুধীরের। তবে পথচলতি মানুষের প্রচেষ্টায় সঙ্গে সঙ্গেই ধরা পড়ে যায় দু’জন। এদের মধ্যে মূল অভিযুক্ত মহেশও রয়েছে। পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে বাকি দু’জনের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন