amit shah meets uddhav thakre

মুম্বই: এসেছিলেন মান ভাঙাতে। ফিরে গেলেন অপ্রিয় কিছু প্রশ্ন শুনে। সম্পর্কের ফাটল মেরামত হল কি না সেটা এখনও পর্যন্ত বোঝা গেল না।

রুষ্ট শিবসেনাকে পাশে পাওয়ার জন্য বুধবার রাতে উদ্ধবের সঙ্গে বৈঠক করেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। প্রয়াত শিবসেনা সুপ্রিমো বাল ঠাকরের বাসভবন মাতোশ্রীতে এক ঘণ্টার বৈঠক হয় দু’জনের। সূত্রের খবর, ওই বৈঠকে মাঝেমধ্যেই বিজেপির বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ উগরে দেন উদ্ধব।

বাজপেয়ী জমানায় এনডিএ শরিকদের সঙ্গে সব সময় সমন্বয় রেখে চলা হত। কিন্তু মোদী যুগে সে সব আর হয় না বলে অভিযোগ করেন উদ্ধব। শরিকদের গুরুত্ব না দেওয়ার অভিযোগও শুনতে হয় বিজেপি সভাপতিকে। পাশাপাশি মহারাষ্ট্র বিজেপির একরোখা মনোভাবের সমালোচনাও করেন তিনি। মহারাষ্ট্র মন্ত্রিসভায় শিবসেনার মন্ত্রীদের গুরুত্ব দেওয়া হয় না বলেও অভিযোগ করেন উদ্ধব। এত অপ্রিয় প্রশ্ন শোনার পরেও বিজেপির তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, খুব ইতিবাচক মনোভাবে বৈঠক হয়েছে।

বিজেপির সূত্র থেকে বলা হয়েছে, “খুব ইতিবাচক আবহে বৈঠক হয়েছে। দুই দলের সম্পর্কের ফাটল অনেকটাই কমেছে। ভবিষ্যতে আরও বৈঠক করা হবে দু’ দলের মধ্যে।” তবে ২০১৯-এ শিবসেনা যে একা লড়ার কথা বলেছে, সেই ব্যাপারে কিছু রফাসূত্র বেরোয়নি। শিবসেনা যদি সত্যিই একা লড়ে, তা হলে আসন্ন নির্বাচনে বাড়তি সুবিধা পেয়ে যাবে কংগ্রেস। কারণ লোকসভায় এনসিপি এবং কংগ্রেসের জোট প্রায় পাকা।

তবে শিবসেনা যতই একা লড়ার হুমকি দিক, এটা পুরোটাই নাটক বলে মনে করছে কংগ্রেস। কংগ্রেস নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী পৃথ্বীরাজ চৌহানের মতে, আসন নিয়ে দরকষাকষি করতেই এই চাল চেলেছে শিবসেনা।

শিবসেনা প্রধানের পরে এ বার অমিতের লক্ষ্য পঞ্জাব। সেখানে তাদের বড়ো শরিক সুখবীর সিং বাদলের নেতৃত্বাধীন অকালি দলের মান ভাঙাতে ছুটবেন তিনি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here