নয়াদিল্লি: সবরীমালা মন্দিরে ঋতুমতী মহিলাদের প্রবেশের ওপরে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পরে এখনও পর্যন্ত ৫১ জন এমন মহিলা প্রবেশ করেছেন। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টে এমনই জানাল কেরল সরকার।

এ মাসের প্রথম সপ্তাহে মন্দিরে যে দু’জন ঋতুমতী মহিলা প্রবেশ করেছিলেন, সেই বিন্দু এবং কনকদুর্গার একটি আবেদনের শুনানিতে এই বক্তব্য পেশ করেন কেরল সরকারের আইনজীবী বিজয় হানসারিয়া।

গত বছর সেপ্টেম্বরের ২৮ তারিখ সবরীমালা মন্দিরে ঋতুমতী মহিলাদের প্রবেশের ওপরে নিষেধাজ্ঞা তুলে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। তার পর সেই মন্দিরে প্রবেশ করার জন্য অন্তত সাড়ে সাত হাজার ঋতুমতী মহিলার আবেদন জমা পড়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ৫১ জন মহিলাই সেই মন্দিরে কোনো বাধা ছাড়া প্রবেশ করতে পেরেছেন। সেই ৫১ মহিলার নামের একটি তালিকাও এ দিন আদালতে জমা দিয়েছে কেরল সরকার।

এ দিনের শুনানিতে যে সব ঋতুমতী মহিলা মন্দিরে প্রবেশ করেছেন, তাঁদের সব সময়ের জন্য নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার জন্য রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

উল্লেখ্য, সবরীমালায় প্রবেশ করার পর থেকেই হুমকি দেওয়া হচ্ছিল বিন্দু এবং কনকদুর্গাকে। কিছু দিন আগে নিজের শাশুড়ির হাতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন কনকদুর্গা।

সবরীমালায় প্রবেশাধিকারের ব্যাপারে পুনরায় বিবেচনার যে আবেদন সুপ্রিম কোর্টে জমা পড়েছে, কিছু দিনের মধ্যেই তার শুনানি হওয়ার কথা শীর্ষ আদালতে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here