Chetan Bhagat

ওয়েবডেস্ক: #মি টু এখন প্রতিবাদের নয়া অঙ্গন। যৌন হেনস্থা বা যৌন প্রস্তাবের দায়ে অভিযুক্ত একাধিক জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বকে কাঠগড়ায় তুলে শোরগোল চলছে দেশ জুড়ে। এ বার সেই তালিকাতেই জুড়ে গেল লেখক চেতন ভগতের নাম।

চেতনের বিরুদ্ধে যৌন প্রস্তাবের অভিযোগ এনে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন এক জনৈকা মহিলা। নিজেকে বিবাহিতা দাবি করে শেয়ার করেছেন চেতনের সেই কু-প্রস্তাব সম্বলিত হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজের স্ক্রিন শট। অর্থাৎ, নিজের অভিযোগের সপক্ষে জোরালো তথ্যও তিনি হাজির করেছেন। ফলে বেকায়দায় পড়ে গিয়েছেন বিখ্যাত লেখক। তিনি রীতিমতো সহানুভূতি আদায়ে নিয়ে ফেলেছেন দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ।

Chetan Bhagat
যে ভাবে ক্ষমাপ্রার্থনা করেছেন লেখক

মহিলা যে এক জোড়া হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজের স্ক্রিনশট শেয়ার করেছেন, সেখানে না কি স্পষ্টতই দেখা গিয়েছে চেতনের কু-প্রস্তাবের নমুনা। তিনি স্পষ্টতই ওই মহিলার সঙ্গ চেয়ে আবেদন রেখেছেন। চেতন অবশ্য প্রকাশ্যে জানিয়েছেন, মহিলার দাবি সত্য। এবং এই ধরনের কথোপথনের জন্য অনুতপ্ত। নিজের ফেসবুকেই লিখেছেন সে সব কথা।

তিনি লিখেছেন, নিজের স্ত্রী অনূশা ভগতের সঙ্গে আলোচনার পরই তিনি ফেসবুকে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। “আমি পরিস্থিতিটা বুঝতে পারছি। আমি এই ধরনের মন্তব্যের জন্য অনুতপ্ত। তাই ক্ষমা চাইছি…”

ইতিমধ্যেই যৌন হেনস্থার অভিযোগে সরগরম দেশ। বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা নানা পটেকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন নায়িকা তনুশ্রী দত্ত। এই অভিযোগ ওঠার পরই মুখ খুলতে শুরু করেছেন অনেকেই। সদ্য এমনই ঘটনার শিকার হওয়ার অভিযোগ এনেছেন কঙ্গনা রানৌত। তিনি অভিযোগ করেছেন পরিচালক বিকাশ বহেলের বিরুদ্ধে। তবে সে সব ক্ষেত্রে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে অভিযুক্তদের তরফে। কিন্তু চেতন নিজের দোষ স্বীকার করে নেওয়ায় অবশ্যই অন্য মাত্রা আদায় করে নিলেন!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন