Ram Temple
প্রতীকী ছবি

অযোধ্যা: ভোট যত এগিয়ে আসছে, রামমন্দিরকে কেন্দ্র করে উত্তাপ তত বাড়ানোর চেষ্টা করছে হিন্দুত্ববাদী দলগুলি। সপ্তাহান্তে শিবসেনা এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদের দু’টি সমাবেশকে ঘিরে থমথমে হয়ে রয়েছে অযোধ্যা।

রামমন্দির তৈরি করার দাবিতে রবিবার অযোধ্যায় ধর্ম সংসদের ডাক দিয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি)। সংগঠনের দাবি, ১৯৯২-এর পরে এত বড়ো জমায়েত অযোধ্যায় কখনও হয়নি। রামমন্দির তৈরি করার ব্যাপারে পরবর্তী পদক্ষেপ কী নেওয়া হবে, সেই নিয়ে আলোচনাই হবে এই মিছিলের মূল বিষয়।

এই সমাবেশের পক্ষে সমর্থন আদায়ের জন্য গত কয়েক দিন ধরেই উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জায়গায় বাইক মিছিল করছে ভিএইচপির সমর্থকরা। সেই বাইক মিছিলকে কেন্দ্র করে খুব একটা উত্তাপ না ছড়ালেও, সময় যত এগোচ্ছে তত থমথমে ভাব গ্রাস করছে গোটা রাজ্যকে।

তবে ভিএইচপির তরফ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, শৃঙ্খলাবদ্ধ ভাবে এই মিছিল এগোবে। ভিএইচপির মুখপাত্র শরদ শর্মা বলেন, “মিছিল শৃঙ্খলাবদ্ধ থাকবে। সাধুসন্তদের তরফ থেকে আসা নির্দেশমতো মিছিলে অংশগ্রহণকারী মানুষরা এগোবেন। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না।”

তবে আইনশৃঙ্খলার অবনতি যাতে না হয়, সে জন্য অযোধ্যা শহরে সেনা মোতায়েনের জন্য সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন করেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব।

আরও পড়ুন মোদীর ‘মন কি বাত’ শোনার আর্জি রাহুল গান্ধীর!

অখিলেশ বলেন, “বিজেপি সংবিধান মানে না। তারা যা কিছু করতে পারে। অযোধ্যায় যে রকম পরিস্থিতি রয়েছে, তাতে অনেক কিছু ঘটতে পারে। সুপ্রিম কোর্ট ব্যাপারটার দিকে নজর দিক এবং প্রয়োজনে সেনা পাঠানোর কোথাও চিন্তাভাবনা করুক।”

তবে এই সমাবেশকে ঘিরে নিরাপত্তা অনেকটাই বাড়ানো হয়েছে। আধাসেনাও মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাজ্য সরকার।

এ দিকে শনিবারই রামমন্দিরের দাবিতে অযোধ্যায় সভা করার কথা শিবসেনা নেতা উদ্ভব ঠাকরের। তবে রাজ্যে যে হেতু শিবসেনার দাপট কম, সে কারণে এই সভা নিয়ে বিশেষ চিন্তিত নয় কেউ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here