কোনো অংশে পিছিয়ে নেই ভারতের নারীশক্তি, দৃষ্টান্ত ফাল্গুনী নায়ার

দেশের অগ্রগতিতে নারীর ভূমিকা পুরুষের চেয়ে কোনো অংশেই কম নয়। কোনো ক্ষেত্রেই। ঠিক যেমনটা সাম্প্রতিক কালে দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিশ্বজনীন প্রতিষ্ঠিত মহিলার তালিকায় নিজের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন ফাল্গুনী নায়ার।

0

কলকাতা: ‘নারী শক্তি’ আবির্ভূত হবে ‘রাষ্ট্রশক্তি’ হিসেবে। নানা মতের দেশ হলেও এই ভারতীয় ধারণা প্রাচীন। দেশের অগ্রগতিতে নারীর ভূমিকা পুরুষের চেয়ে কোনো অংশেই কম নয়। কোনো ক্ষেত্রেই। ঠিক যেমনটা সাম্প্রতিক কালে দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে বিশ্বজনীন প্রতিষ্ঠিত মহিলার তালিকায় নিজের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন ফাল্গুনী নায়ার (Falguni Nayar)। নেপথ্যে তাঁর বিউটি স্টার্টআপ নাইকা (Nykaa)!

স্ব-প্রচেষ্টার কৃতিত্ব

স্বাধীনতার ৭৫তম বর্ষ পূর্তিতে ‘আজাদি কি অমৃত মহোৎসব’ কর্মসূচির অঙ্গ হিসেবে দেশে নারী শক্তিকে সামনে আনার প্রয়োজনীয়তার কথা বারবার তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই জায়গায় ফাল্গুনীও একটা বড়ো অংশের নারী সমাজের কাছে অনুপ্রেরণা।

নাইকা-র প্রায় অর্ধেক মালিক ফাল্গুনী নায়ার। বিউটি স্টার্টআপটি বাজারে আত্মপ্রকাশ করার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর সংস্থার শেয়ারের দাম ঊর্ধ্বমুখী। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইনডেক্স অনুযায়ী, তিনি নিজের প্রচেষ্টাতেই ভারতের সবচেয়ে ধনী মহিলা বিলিওনেয়ার হয়ে উঠেছেন।

কে এই ফাল্গুনী নায়ার?

এর আগে ভারতের একটি ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কের নেতৃত্বে ছিলেন ফাল্গুনী। ২০১২ সালে, প্রায় ৫০ বছর বয়সে তিনি নাইকা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সেই সময়ে, প্রসাধনী সামগ্রী কেনার ব্যাপারে দেশের বেশির ভাগ মহিলা আশেপাশের দোকানের উপরেই বেশি নির্ভর করতেন। যেখানে অনেক সময়ই স্টক সে ভাবে মিলত না। আবার পছন্দের পণ্যটির বিজ্ঞানসম্মত ভাবে পরীক্ষিত কি না, সে খবরও পাওয়া মুশকিল হতো।

সেই সুযোগ কাজে লাগিয়েই এই বিউটি স্টার্টআপের প্রতিষ্ঠা। স্টার্টআপটি এখন থেকে দেশের শীর্ষস্থানীয় বিউটি রিটেলারে পরিণত হয়েছে। গ্ল্যামারাস বলিউড অভিনেতা এবং সেলিব্রিটিরা যুক্ত হয়েছেন সংস্থার প্রচারে। ৭০টিরও বেশি স্টোর ছাড়াও অনলাইনে প্রসাধন সামগ্রী বিক্রেতা হিসেবে শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে।

কোনো অংশে পিছিয়ে নেই নারীশক্তি

দু’টি পারিবারিক ট্রাস্ট এবং সাতটি প্রমোটার সংস্থার মাধ্যমে বর্তমানে সংস্থার প্রায় অর্ধেক অংশীদার ফাল্গুনী। সংস্থায় যুক্ত রয়েছেন তাঁর ছেলে এবং মেয়ে। তাঁরাও নাইকা-র প্রমোটারদের মধ্যে রয়েছেন।

ভারতের সব চেয়ে ধনী স্ব-প্রতিষ্ঠিত মহিলাদের তালিকায় এখন নাম উঠেছে নাইকা প্রতিষ্ঠাতা ফাল্গুনীর। তাঁর সম্পদের মূল্য ৫৭ হাজার ২৫০ কোটি টাকা। ফাল্গুনী শুধুমাত্র নিজের সম্পদবৃদ্ধিতে মনোনিবেশ করেছেন, সে কথাও বলা যায় না। কারণ, তাঁর সংস্থায় কর্মরত মহিলারাও সমাজে নিজের মতো করে প্রতিষ্ঠিত। পরাধীন ভারতে নারীরাও ভারতীয় স্বাধীনতা সংগ্রামের অবিচ্ছেদ্য অংশ। ‘আজাদি কি অমৃত মহোৎসবে’ নারীশক্তি এ ভাবেই রাষ্ট্রশক্তি হিসেবে আবির্ভূত হোক!

আরও পড়তে পারেন: ইচ্ছে আর আত্মবিশ্বাসে ভর করে এগোচ্ছে ভারতের নারীশক্তি, উদাহরণ অরুন্ধতী ভট্টাচার্য

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন