anil swarup,Secretary, School Education and Literacy, Ministry of Human Resource Development

ওয়েবডেস্ক: “মাফিয়ারা রয়েছে আন্ডারগ্রাউন্ডে আর শিক্ষা ব্যবস্থা পরিচালিত হচ্ছে তার উপরেই। এটা একটা মারাত্মক সমঝোতা। শিক্ষা ব্যবস্থার প্রধান আধারই হচ্ছে শিক্ষকরা। ফলে যার আধারটাই তৈরি হয়েছে ভুলের উপর ভিত্তি করে তার ফলও হচ্ছে ভুল। এই সমস্যা ছড়িয়ে রয়েছে সমস্ত স্তরেই। শিক্ষক তৈরির কারখানা বলা যেতে পারে বি.এড কলেজগুলোকেই। এদের ৪০ শতাংশই পরিচালিত হচ্ছে বড়ো মাপের মাফিয়াদের দিয়ে। যার জেরে শিক্ষক নিয়োগের পদ্ধতিটাই ভুল হয়ে যাচ্ছে। যাঁরা ওই সব কলেজগুলো থেকে শিক্ষকতা করতে আসছেন তাঁদেরও যথেষ্ট কর্ম দক্ষতা নেই। এঁদের মধ্যে ৩০ শতাংশ ঠিক মতো স্কুলেই যান না, কারণ তাঁদের পড়ানোর কোনো যোগ্যতাই নেই।”

কথাগুলি বলেছেন মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের বিদ্যালয় শিক্ষা এবং সাক্ষরতা বিভাগের সচিব অনিল স্বরূপ। ২০১৬-এর ২৩ নভেম্বর যাঁকে ওই পদে বসিয়েছে কেন্দ্র। তবে এই প্রথম নয়, গত ডিসেম্বরেও তিনি একটি সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে একই তত্ত্বের উপস্থাপন করেছিলেন। কিন্তু তখন তিনি এত নিখুঁত পরিসংখ্যান তুলে ধরতে পারেননি। এ বার রীতি মতো স্বকীয় সমীক্ষার ঢঙেই তা পেশ করলেন।

১৯৮১ ব্যাচের আইএএস স্বরূপ আগে কয়লা মন্ত্রকের সচিবের পদ সামলেছেন। সেখানেও তিনি মাঝে মধ্যেই কোনো না কোনো বিতর্কে জড়িয়েছেন। তবে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার হাল বদলে তাঁর পরিকল্পনার কথা জানতে চাওয়া হলে তিনি যে ধরনের মন্তব্য করলেন তা নিয়ে মোটেই বিস্মিত নয় ওয়াকি বহাল মহল। কারণ, স্বরূপের স্বরূপ সম্পর্কে যাঁরা ন্যূনতম খোঁজখবর রাখেন তাঁরা জানেন, কয়লা মন্ত্রকে থাকাকালীন তিনি কয়লা মাফিয়াদের নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। হয়তো সেই অভিজ্ঞতার সঞ্চয় ভাণ্ডার থেকেই তিনি শিক্ষায় মাফিয়া-রাজের এই পরিসংখ্যান রচনায় সফল হয়েছেন!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন