বুলন্দশহর (উত্তরপ্রদেশ): উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে গোরক্ষকদের তাণ্ডব এবং তার জেরে হিংসা ও এক পুলিশ আধিকারিকের খুনের ঘটনায় বজরং দলের এক নেতাকে মূল অভিযুক্ত হিসেবে চিহ্নিত করল পুলিশ। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশের দাবি, ওই ঘটনায় মুখ্য ভূমিকা ছিল বজরং দলের শীর্ষ স্থানীয় নেতা যোগেশ রাজের। তাঁর সঙ্গে বিজেপি যুব মোর্চা নেতা শিখর অগরওয়াল এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা উপেন্দ্র রাঘবেরও ভূমিকা রয়েছে বলে মনে করছে পুলিশ।

এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় মোট ৮৮ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে ২৮ জনের পরিচয় পাওয়া গেলেও, ৬০ জন অজ্ঞাতপরিচয়।

উল্লেখ্য, পশুর দেহাবশেষ উদ্ধার হওয়ায় রবিবার তুমুল গণ্ডগোল শুরু হয় বুলন্দশহরে। হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলির দাবি, দেহাবশেষগুলি গোরুর। যদিও তারা সত্যি গোরু কি না, তা এখনও জানা যায়নি। গণ্ডগোল থামাতে গিয়ে বিক্ষোভকারীদের রোষের শিকার হন পুলিশ আধিকারিক সুবোধ কুমার সিংহ। তাঁর মাথায় গুলি লাগে। অন্য দিকে বিক্ষোভকারীদের মধ্যেও একজনের মৃত্যু হয়। উল্লেখ্য, দাদরিতে গোরক্ষকদের হাতে মহম্মদ আখলাকের খুনের ঘটনার তদন্তকারী অফিসার ছিলেন সুবোধ কুমার সিংহ। পরে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

গোটা ঘটনার পরে থমথমে রয়েছে বুলান্দশহর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here